তিন ফিফটিতে সিলেটের প্রথম জয়

প্রকাশিত: ৬:২৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৭, ২০১৫

তিন ফিফটিতে সিলেটের প্রথম জয়

50এবারের ওয়ালটন জাতীয় ক্রিকেট লিগের চতুর্থ রাউন্ডে বরিশালের বিপক্ষে শেষ ওভারের নাটকীয়তায় হেরে গেলেও পঞ্চম রাউন্ডে জয় তুলে নিয়েছে সিলেট। দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচে চট্টগ্রামকে তাদের মাটিতেই ৫ উইকেটে হারিয়ে এবারের জাতীয় লিগে প্রথম জয় পেয়েছে অলক কাপালির দল।
চট্টগ্রামে মঙ্গলবার চতুর্থ ও শেষ দিনের খেলা ৬০ ওভার বাকি থাকতে স্বাগতিকদের দেওয়া ২৬০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ইমতিয়াজ হোসেন, শাহনাজ আহমেদ ও জাকির হোসেনের ফিফটিতে ৭.৪ ওভার বাকি থাকতেই জয় তুলে নেয় সিলেট।

সিলেটের দুই ওপেনার ইমতিয়াজ হোসেন ৭৪ ও শাহনাজ আহমেদ ৭৬ রান করেন। আর তিনে নামা জাকির দলের জয় থেকে ৪ রান দূরে থাকতে ব্যক্তিগত ৫৫ রান করে আউট হন।

এর আগে শেষ দিনের মধ্যাহ্ন বিরতির ঠিক আগ মুহূর্তে অলআউট হওয়ার আগে দ্বিতীয় ইনিংসে সবকটি উইকেট হারিয়ে ২৭২ রান তোলে চট্টগ্রাম। ফলে দিনের বাকি দুই সেশনে ৬০ ওভারে জয়ের জন্য সিলেটের লক্ষ্য দাঁড়ায় ২৬০ রান।

জয়ের জন্য শুরু থেকেই মারমুখি ব্যাটিং করতে থাকেন সিলেটের দুই ওপেনার ইমতিয়াজ হোসেন ও শাহনাজ আহমেদ। ইনিংসের ১৬তম ওভারে মাত্র ৫১ বলে ফিফটি পূর্ণ করে ইমতিয়াজ। এরপর ইনিংসের ২৫তম ওভারে শাহনাজও ফিফটি পূর্ণ করেন শাহনাজ। এজন্য তিনি বল খেলেন ৭৪টি।

শাহনাজের সঙ্গে উদ্বোধনী জুটিতে ১৪০ রান যোগ করে ব্যক্তিগত ৭৪ রানে ফিরে যান ইমতিয়াজ। ৯৮ বলে ৭টি চারের সাহায্যে ৭৪ রানের ইনিংসটি সাজান ৩০ বছর বয়সি এই ব্যাটসম্যান। এরপর দ্বিতীয় উইকেটে জাকির হাসানের সঙ্গে ৪৫ রান যোগ করে বিদায় নেন শাহনাজ (৭৬)। নাবিল সামাদের বলে তাসামুল হককে ক্যাচ দেন তিনি।

ওয়ালটনের এরিয়া ম্যানেজার আবু রাফা মোহাম্মদ নাঈমের (মাঝে) কাছ থেকে ম্যাচসেরার পুরস্কার নিচ্ছেন সিলেটের শাহনাজ আহমেদ (ডানে)। ছবি: রেজাউল করিম

শাহনাজের বিদায়ের পর তৃতীয় উইকেটে আবুল হাসান রাজুর সঙ্গে ৪৮ রানের জুটি গড়েন জাকির। রাজু ১৯ রান করে রানআউটে কাটা পড়লে এ জুটি ভেঙে যায়। তবে ফিফটি করে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন জাকির। অবশ্য জয় থেকে ৯ রান দূরে থাকতে অধিনায়ক কাপালি (৭) ও ৪ রান দূরে থাকতে জাকির (৫৫) আউট হয়ে যান। তবে নাবিল সামাদের বলে ছক্কা হাঁকিয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন রুমান আহমেদ (১১*)।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

চট্টগ্রাম প্রথম ইনিংস: ৮৭.২ ওভারে ২৭০ (তাসামুল ৭৪, ইয়াসির ৫৫, ডলার ৩৯, মুমিনুল ৩৬; আবুল হাসান ৪/৩৪, এনামুল জুনিয়র ৩/৭৫) ও দ্বিতীয় ইনিংস: ১০৯.৫ ওভারে ২৭২ (ইয়াসির ৮১, তাসামুল ৭৭; রাহাতুল ৪/৭২)।

সিলেট প্রথম ইনিংস: ৯৬.১ ওভারে ২৮৩ (কাপালি ৪৬, জাকির ৩০, এনামুল জুনিয়র ২৯, রাহাতুল ২৭; সাইফউদ্দিন ৩/৫৫, সামাদ ৩/৮৬, ইফতেখার ২/৪৩) ও দ্বিতীয় ইনিংস ৫২.২ ওভারে ২৬৪/৫ (শাহনাজ ৭৬, ইমতিয়াজ ৭৪, জাকির ৫৫, রুমান ১১*; নাবিল সামাদ ৩/৭১)।
ফল: সিলেট ৫ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচসেরা: শাহনাজ আহমেদ (সিলেট)।

 

আর্কাইভ

নভেম্বর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« অক্টোবর    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com