প্রচ্ছদ

কু-প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় গোলাপগঞ্জে গৃহবধূকে পিটিয়ে আহত করলো বাড়িওয়ালা

প্রকাশিত হয়েছে : ১০:২৮:১৫,অপরাহ্ন ০৪ অক্টোবর ২০১৫ | সংবাদটি ১২০ বার পঠিত

সিলেটেরকন্ঠডটকম

5কু-প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় সিলেটের গোলাপগঞ্জে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে আহত করেছে বাড়িওয়ালা ও তার লোকজন। গুরুতর আহত গৃহবধূ ৩ দিন সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার পর গতকাল শনিবার থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। আহতের অভিযোগ তার স্বামী শুকুরের দেওয়া অনৈতিক প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় স্বামীর ইশারায় বাড়িওয়ালা এ হামলা করে।
জানা গেছে, সিলেটের গোলাপগঞ্জের ঘোষগাঁও গ্রামের জয়নাল মিয়ার কলোনীতে স্থানীয় বাঘাগ্রামের শুকুর মিয়া স্ত্রীসহ বসবাস করতো। বাড়িওয়ালার সাথে শুকুরের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে উঠে। এ সম্পর্কের সূত্র ধরে জয়নালের সাথে অনৈতিককাজে লিপ্ত হতে শুকুর তার স্ত্রীকে চাপ দেয়। এতে স্ত্রী রাজী না হলে ২৯ সেপ্টেম্বর শুকুর তার স্ত্রীকে নির্যাতন করেন। এ ঘটনায় রাতে নির্যাতিতা গৃহবধূ গোলাপগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করেন। এতে স্বামী শুকুর মিয়া ক্ষিপ্ত হয়ে তার চাচাতো ভাই রাজু, বাড়িওয়ালা জয়নালকে জিডির বিষয় জানায়। এতে তারা দেশিয় অস্ত্র দিয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টায় জয়নালের কলোনীতে প্রকাশ্যে ওই গৃহবধূকে মারধোর করে। এ সময় ওই গৃহবধূকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে জয়নালের পিতা আজির উদ্দিনসহ ২ জন আহত হন। নির্যাতনে গৃহবধূ গুরুতর আহত হলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
এ ব্যাপারে নির্যাতিতার দুলাভাই ফারুক আহমদ জানান, শুকুরের কু-প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় সে তার সহযোগিদের দিয়ে এ হামলা চালায়। এ ঘটনায় গুরুতর আহত ওই গৃহবধূ হাসপাতালে ৩ দিন চিকিৎসাশেষে গোলাপগঞ্জ থানায় অভিযোগ করেছেন।
এ ব্যাপারে নির্যাতিতা বলেন, স্বামী শুকুরের ইন্দনে তার চাচাতো ভাই রাজু ও বাড়িওয়ালা জয়নাল আমাকে মারপিট করে আহত করে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকায় মামলা করতে দেরি হয়েছে। আমি নির্যাতনকারীদের শাস্তি চাই।
এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ থানার ওসি একেএম ফজলুল হক শিবলী জানান, নির্যাতিতার অভিযোগ সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com