কাঁদছে শিশু, কোলে নিতে পারছেন না হতভাগা মা

প্রকাশিত: ১২:২৪ পূর্বাহ্ণ, মে ৫, ২০২০

কাঁদছে শিশু, কোলে নিতে পারছেন না হতভাগা মা

ডেস্ক রিপোর্টঃ 

বাইরে থেকে মা মা বলে ডাকছে আর কাঁদছে চার বছরের শিশু। কখনো জানালার গ্রিল ধরে উপরে ওঠার চেষ্টা করছে একপলক মাকে দেখার আর কথা বলার জন্য। ওদিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ঘরবন্দী মা চাইলেও ছেলের সঙ্গে কথা বলতে, কোলে নিতে পারছেন না।

এমন হৃদয়বিদারক দৃশ্য দেখা গেছে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জের ইউএনও বৈশাখী বড়ুয়ার বাড়িতে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ঘরবন্দী জীবন কাটাচ্ছেন তিনি। যে মানুষ উপজেলার এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে বীরদর্পে ঘুরে বেড়াতেন। করোনাভাইরাসের কারণে তিনিই আজ পরিবারের ভালোবাসা থেকে বঞ্চিত।

বৈশাখী বড়ুয়ার বাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে, সরকারি কোয়ার্টারের একটি ঘরে পরিবার থেকে সম্পূর্ণ আলাদা থাকছেন তিনি। ঘরের বাইরে থেকে উঁকি দিয়ে মাকে একপলক দেখার চেষ্টা করছে শিশু দ্বিজরাজ।

বিষয়টি বিয়ে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। নরসিংদীর বর্তমান প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রেজাউল করিম। তিনি হাজীগঞ্জে দীর্ঘদিন কাজ করেছেন।

স্ট্যাটাসটি তিনি লিখেছেন- আপাত দৃষ্টিতে বাচ্চাদের লুকোচুরি খেলার ছবি এটি। কিন্তু না, এর ভেতরে লুকিয়ে আছে বুকে চিনচিনে ব্যথার একটি গল্প! আমাদের সবার প্রিয় মানুষটির একমাত্র ছেলে দ্বিজরাজ উঁকি দিয়ে তার মাকে দেখছে। মা হাজীগঞ্জের ইউএনও। করোনা শুরুর প্রথম দিন থেকেই আনাচে কানাচে ছুটোছুটি করেছেন উপজেলাকে করোনামুক্ত রাখতে। তিনি তার কাজে সফল কিন্তু নিজে আক্রান্ত…।

৯ এপ্রিল চাঁদপুরকে লকডাউন ঘোষণার পর থেকেই লকডাউন বহাল রাখা, করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা ও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণে হাজীগঞ্জে ব্যাপক অভিযান চালিয়েছেন ইউএনও বৈশাখী বড়ুয়া। কিন্তু ২৯ এপ্রিল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই ঘরবন্দী হয়ে পড়েছেন তিনি।

আর্কাইভ

মে ২০২০
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« এপ্রিল    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com