‘নীরব’ মাশরাফি, আলোচনায় সাকিব

প্রকাশিত: ১:০৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২০

‘নীরব’ মাশরাফি, আলোচনায় সাকিব

অনেকদিন পর ক্রিকেটে ফিরেছেন। গত বিশ্বকাপের পর থেকেই মাঠের বাইরে তিনি। তবে ভিন্ন একটি কারণে এই সিরিজের দল ঘোষণার পর থেকেই আলোচনায় তিনি। বিশেষত বিসিবি প্রধানের বরাত দিয়ে গণমাধ্যমে একটি সংবাদ প্রকাশের পর থেকেই শুরু হয় গুঞ্জন। সেই থেকে সবখানেই একই প্রশ্ন- এটাই কি মাশরাফি বিন মর্তুজার শেষ আন্তর্জাতিক সিরিজ?

সিলেটে তাই সবার আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকবেন মাশরাফি এতো অনুমেয়ই। অবসর ইস্যুতে এখন পর্যন্ত চুপ বাংলাদেশের ক্রিকেটের বাঁক বদলকারী এই অধিনায়ক। সিলেটে তাই তার কথা শোনার জন্য মুখিয়ে ছিলেন গণমাধ্যমকর্মীরা। কিন্তু বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দলের সঙ্গে সিলেট এলেন না মাশরাফি। ফলে মাশরাফির কথাও শোনা গেলো না এদিন। তামিমকে নিয়ে শুক্রবার সকালে সিলেট পৌঁছেন তিনি।

বিকেলে সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে দলের সঙ্গে অনুশীলনে যোগ দেন সাংসদ হয়ে ওঠা এই ক্রিকেটার। এবার মাশরাফির সাথে কথা বলা যাবে- শুক্রবার বিকেলে এমটি ভেবেছিলেন যেসব গণমাধ্যমকর্মীরা সন্ধ্যায় এসে তাদের হতাশই হতে হলো। মাশরাফি নয়, দলের পক্ষে কথা বলতে এলেন দীর্ঘদিন পর ইনজুরি থেকে ফেরা সাইফুদ্দিন। ফলে শুক্রবার পর্যন্ত মাশারাফির অবসরসংক্রান্ত আলোচনা গুঞ্জনই থেকে গেলো। খোলাসা হলো না।

মাশরাফির এই মৌনতার দিনে আলোচনায় ওঠে এলেন আইসিসির নিষেধাজ্ঞা নিয়ে বর্তমানে মাঠের বাইরে থাকা দেশসেরা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। তার নামটি আলোচনায় নিয়ে আসলেন মূলত জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক চামু চিবাবা।

শুক্রবার সকালে সিলেট ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুশীলন করে জিম্বাবুয়ে দল। অনুশীলন শেষে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে আসেন চিবাবা। প্রায় ১৬ মাস পর দলে ফিরেছেন তিনি। ফিরেই পেয়েছেন অধিনায়কের দায়িত্ব। বাংলাদেশ দলে সাকিকের না থাকাকে নিজ দলের জন্য বাড়তি সুবিধা হিসেবে মনে করেছেন জিম্বাবুয়ের এই অধিনায়ক। তিনি বলেন, সাকিবের না থাকায় আশা করছি আমরা কিছু বাড়তি সুবিধা পাবো। তবে এজন্য পুরো দলকে ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে, এমনটিও মনে করে দিয়েছেন তিনি। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে টেস্ট হারের ক্ষত এখনও শুকায়নি। একমাত্র টেস্টে ইনিংস ব্যবধানে হেরেছে দলটি। তবে ওয়ানডেতে ভালো পারফরমান্সের প্রত্যাশা চিবাবার। চিবাবা বলেন, মাঠে যেকোন কিছু ঘটতে পারে। যারা ভালো ক্রিকেট খেলবে তাদেরই জয়ের সম্ভাবনা তৈরি হবে।

দুপুর দেড়টায় অনুশীলন শেষ করে হোটেলে ফেরে জিম্বাবুয়ে। আর বাংলাদেশ দল অনুশীলন আসে বেলা সাড়ে ৩টায়।

প্রায় দুই ঘন্টা নেটে ঘাম ঝড়ান মুশফিক-তামিমরা। ব্যাট-বল ছেড়ে দলেল সদস্যদের নিয়ে কিছুক্ষণ ফুটবল নিয়েও মেতে থাকতে দেখা যায় দলপতি মাশরাফিকে।

সন্ধ্যায় সাংবাদিকদের সাথে আলাপ করতে আসেন ইনজুরি কাটিয়ে বিশ্বকাপের পর মাঠে ফেরা পেস বোলিং অলরাউন্ডার মো. সাইফুদ্দীন।

অনেকদিন ওয়ানডে না খেলার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিশ্বকাপে লর্ডসে খেলার পর আমার আর খেলা হয়নি। বাংলাদেশও দীর্ঘদিন ওয়ানডে খেলেনি। তবে জিম্বুাবুয়ের বিপক্ষে আমাদের খেলা ঘরের মাটিতে। ফলে কন্ডিশনের বেনিফিট অবশ্যই আমরা পাবো। শেষ টেস্টেও আমরা ভালো করে জিতেছি। আশা করছি ওয়ানডেতেও ভালো যাত্রা শুরু করবো।

পাওয়ার প্লে আর ডেথ ওভারে অধিক গুরুত্ব দেওয়ার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই সময়ে বোলাররা ভালো করলে পরে ব্যাটসম্যানদের উপর চাপ কম পরে। ফলে এদিকটায় আমাদের মনোযোগী হতে হবে। রান কম দেওয়ার।
দীর্ঘদিন দলের বাইরে থাকার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে সাইফুদ্দিন বলেন, একজন ক্রিকেটারের জন্য মাঠের বাইারে থাকা খুব কষ্টকর। পাঁচ মাস ধরে আমি এই সময়ের অপক্ষোয় ছিলাম। আবার দলে ফিরবো, সবার সঙ্গে ড্রেসিংরুম ভাগাভাগি করে নেবো সেই প্রতীক্ষায় ছিলাম। আমার উপর আস্থা রাখার জন্য নির্বাচক ও টিম ম্যানেজম্যান্টকে ধন্যবাদ। সুযোগ পেলে মাঠে এর প্রতিদান দিতে চাই।

১ মার্চ সিলেট স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে শুরু হবে। তার আগে শনিবার অনুশীলনের সুযোগ পাবে বাংলাদেশ। সিরিজ শুরুর আগে অবসর বিষয়ে মাশরাফির নীরবতা ভাঙ্গারও সুযোগ থাকলো একদিন।

আর্কাইভ

মে ২০২০
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« এপ্রিল    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com