চাউলধনী স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের শিক্ষা সফর

প্রকাশিত: ১১:৫৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২০, ২০২০

চাউলধনী স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের শিক্ষা সফর

বদরুল ইসলাম মহসিন:

সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার ঐতিহ্যবাহী চাউলধনী হাওড় ঘেষা, চাউলধনী স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের শিক্ষা সফর ২০২০ অনুষ্ঠিত। স্কুলে প্রতি বছরের নিয়মিত শিক্ষা সফরের অংশ হিসাবে, কলেজ বাস্তবায়ন কমিটি (ইউকে’র) সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মোহাব্বত শেখের সার্বিক সহযোগীতায় স্কুলের শিক্ষা সফরের সকল শিক্ষার্থীদেরকে পাঠ্যসূচির সংক্রান্ত জ্ঞান অর্জনসহ, অজানা পৃথিবীর বিচিত্র রুপের প্রত্যক্ষ করা হয়।

(সোমবার) ২০ জানুয়ারী ২০২০ সকালে কলেজ প্রাঙ্গন থেকে বিশাল বাস বহরের মাধ্যমে প্রকৃতি সুন্দর্য, চা বাগানসহ সিলেটের একমাত্র প্রকৃতিক পরিবেশে ঘেরা অতি প্রিয় স্থান সিলেট নগরীর টিলাগড়ে ‘বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ কেন্দ্র’ ইকোপার্কে যাত্রা শুরু হয়।

এ বিষয়ে কলেজ বাস্তবায়ন কমিটি (ইউকে’র) সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মোহাব্বত শেখ বলেন, দুটি পাতা একটি কুঁড়ির দেশ সিলেটের প্রচীন চা বাগান, প্রাচীন পাহাড়ের প্রকৃতির সম্পর্কে বইয়ের মধ্যে পড়া আর দেখে আসা, জানা তথ্যগুলো এবং বাংলাদেশের এসকল জায়গায়গুলোতে দেখতে পেরে শিক্ষার্থীদের মন আনন্দিত। সফরের শিক্ষাটা পাওয়া হয়ে ওঠে না বেশির ভাগ ছাত্রছাত্রীরই। শিক্ষা সফরের বিষয়গুলো সহজে আত্মস্থ হয়ে যায় এবং তা কখনোইন স্মৃতি থেকে মুছে যায় না। আমাদের শিক্ষা সফরের অন্যতম আকর্ষন ছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, নাচ, গান, অভিনয়, আবৃত্তি ও কৌতুকসহ প্রকৃতির প্রতি পরিচিতি ইত্যাদি। যাতায়াতের সময় ছিল খাবার সরাবরাহ ।

শিক্ষা সফরের বিষয়ে কলেজের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আলতাফ হোসেন আলোকপাত করে বলেন, অনেক বিদ্যালয়ে শীত মৌসুম আসলে, শিক্ষা সফর হলেও, অনেক উচ্চ বিদ্যালয়েই তা হয় না, হলেও অনেক স্কুলে সেটা পিকনিক সীমাবদ্ধ হয়ে পড়ে, সফরের শিক্ষাটা স্কুল পড়–য়া শিক্ষার্থীদের পাওয়া হয়ে ওঠে না বেশির ভাগ ছাত্রছাত্রীদের। আমরা জানি শৈশবে ছেলে ও মেয়েরা খেলতে খেলতে পরিচিত হয় গাছপালা, ফুল, ফল, পাখি আর নানান বিচিত্র প্রকৃতির সঙ্গে। সময়ের সাথে সাথে জেনে নেয় ইতিহাস ও ঐতিহ্যের তথ্যগুলো। বিজ্ঞনের তথ্যগুলো বই পড়ে শিখা আর শিক্ষা সফরে চোখে দেখে শেখা, আর সে বিষয়ে মুখস্থ করে শেখার মধ্যে পার্থক্য অনেক। তিনি আরো বলেন, বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সহযোগিতায় সম্প্রীতির মনোভাব গড়ে ওঠে। শিক্ষার্থীদের মধ্যে তখন দেখা দেয় দ্বায়িত্ব ও তাদের মধ্যে সচেতনতাও ছিল অনেক।

শিক্ষা সফর নিয়ে আনহার আলী বলেন, ছাত্রছাত্রীদেরকে পুঁথিগত বিদ্যার বাইরেও শিক্ষা প্রয়োজন। এ জন্য শিক্ষা সফর বাধ্যতামূলক করা উচিত বলে মনে করেন। তিনি উল্লেখ্য করেন, আনন্দের সঙ্গে হাতে কলমে না শিখলে লেখাপড়াটাও পরিপূর্ণ হয় না। শিক্ষা সফরে অংশ গ্রহন করে, কলেজ বাস্তবায়ন কমিটির কোষাধক্ষ আমির আলী, সিনিয়র শিক্ষক শাহ আলম খান, সহকারি শিক্ষক নাসির উদ্দিন, তানজিনা নাহার, শফিক আহমদ পিয়ারসহ প্রমুখ।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

আর্কাইভ

ফেব্রুয়ারি ২০২০
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জানুয়ারি    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com