কেরানীগঞ্জে অগ্নিদগ্ধ ১০ জন লাইফ সাপোর্টে

প্রকাশিত: ৪:১৫ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯

কেরানীগঞ্জে অগ্নিদগ্ধ ১০ জন লাইফ সাপোর্টে

রাজধানীর কেরানীগঞ্জে চুনকুঠিয়ায় প্লাস্টিক কারখানায় আগুনের ঘটনায় দগ্ধ ১০জন রোগী লাইফ সাপোর্টে আছেন। এদের মধ্যে আব্দুর রাজ্জাক নামের একজন রোগীর অবস্থা খুবই সংকটপূর্ণ।

শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শেখ হাসিনা ন্যাশনাল বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ডা. সামন্ত লাল সেন এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, কেরানীগঞ্জের অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ সর্বমোট ৩১জন রোগী বার্ন ইউনিটে আসে। এর মধ্যে বারো জন মারা গেছেন। ইনস্টিটিউটে এখন দশজন রোগী ভর্তি রয়েছেন। এদের কেউই শঙ্কামুক্ত নয়। প্রত্যেকেই লাইফ সাপোর্টে আছেন। সবার শ্বাসনালী পুড়ে গেছে।

তিনি বলেন, পুরাতন বার্ন ইউনিটে আটজন রোগী আছে। তাদের ১৫থেকে ২০শতাংশ দগ্ধ হয়েছেন। তাদের অবস্থা সংকটপূর্ণ নয়।

ডা. সামন্ত বলেন, এই আগুনে পোড়ার পরিমাণ এত ভয়াবহ যে, বিগত চল্লিশ বছরের অভিজ্ঞতায় এমন ভয়াবহ বার্ন আমি কখনো দেখিনি। যেমন গতকাল এখানে একজন রোগী মারা গেছে, তার মুখমণ্ডল এমনভাবে বিক্রিত হয়েছিলো যে তার স্ত্রী চিনতে পারেননি। পরে তার হাতের কাটা দাগ দেখে তাকে শনাক্ত করতে পারেন তার স্ত্রী।

তিনি জানান, রোগীদের মধ্যে আব্দুর রাজ্জাক নামের একজন যার শরীরের শতভাগ পুড়ে গেছে। তিনি অত্যন্ত ঝুঁকিতে রয়েছেন। বাকি যারা আছে তাদেরও শরীরের ৬০ থেকে ৮০ ভাগ পোড়া রয়েছে। এদের এমনভাবে পুড়েছে যে সেটা রিকোভার করা অত্যন্ত কঠিন ব্যাপার।

এর আগে বুধবার (১১ ডিসেম্বর) বিকেল সাড়ে ৪টায় আগুন লাগে কেরাণীগঞ্জের চুনকুঠিয়ায় প্রাইম প্যাক্ট নামের একটি প্লাস্টিক কারখানায়। ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ইউনিট প্রায় সোয়া একঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

আগুনের ঘটনায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এ পর্যন্ত ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগে ঘটনাস্থলেই মারা গিয়েছিলেন আরও একজন। সবমিলিয়ে কেরানীগঞ্জের ওই কারখানায় আগুনের ঘটনায় এ পর্যন্ত ১৪ জনের প্রাণ গেল।

আর্কাইভ

জানুয়ারি ২০২০
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« ডিসেম্বর    
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com