দুই মন্ত্রীর ভারত সফর বাতিলের কারণ জানালেন ওবাদুল কাদের

প্রকাশিত: ৪:০৮ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯

দুই মন্ত্রীর ভারত সফর বাতিলের কারণ জানালেন ওবাদুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও বিজয় দিবস সামনে রেখে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভারত সফরে যাননি। ভারতের নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল এ সফর স্থগিতের কোনো কারণ না।

শুক্রবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে প্রত্যাগত প্রবাসী আওয়ামী ফোরামের প্রথম ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা জানান তিনি।

এর আগে প্রতিবেশী দেশটিতে সফর বাতিল করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

দিল্লি ডায়ালগ ও ইন্ডিয়ান ওশান ডায়ালগ উপলক্ষে তিন দিনের সফরে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ভারতের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার কথা ছিল পররাষ্ট্রমন্ত্রীর। তার আগে দুপুরে হঠাৎ করেই এই সফর বাতিলের কথা জানায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

আর দেশটির মেঘালয় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কনরাড সাংমার আমন্ত্রণে শুক্রবার বেলা ১১টায় সিলেটের তামাবিল হয়ে মেঘালয়ে যাওয়ার কথা ছিল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর। তার আগের দিন রাতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা শরীফ মাহমুদ অপু মন্ত্রীর এই সফর স্থগিতের কথা জানান।

ভারতে ‘বিতর্কিত’ নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাসের পর এ নিয়ে বিক্ষোভ-উত্তেজনার মাঝে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভারত সফর বাতিল করেছেন বলে গুঞ্জন উঠেছে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, বিজয় দিবস ও শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস আমাদের দুয়ারে কড়া নাড়ছে। তাই রাষ্ট্রীয় ব্যস্ততার কারণে তারা এই সফরে যাননি। তবে পরবর্তীতে যাবেন তারা। সফর চিরতরে বাতিল হয়নি।

বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, ভারতের সঙ্গে আমাদের গঠনমূলক বন্ধুত্ব রয়েছে। এটা যাতে ক্ষুণ্ণ না হয়; সে ব্যাপারে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে আমাদের কোনো বিষয়ে সমস্যা হলে দ্বিপাক্ষিক আলোচনার মাধ্যমে সমাধান সম্ভব।

‘ভারত একটি স্বাধীন-সার্বভৌম দেশ। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন পাশের ঘটনা তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। সেখানে আমাদের মন্তব্য করা সমীচীন নয়।’

তিনি বলেন, তবে যদি সে আইন বাংলাদেশে কোনো প্রভাব ফেলে, আমরা যদি এফেক্টেড হই; অব্যশই আমাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় থেকে বক্তব্য থাকবে। আর ইতিমধ্যে আমাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় থেকে বক্তব্য রাখা হয়েছে। সেই বক্তব্যের বাইরে আমার কোনো ভিন্ন বক্তব্য নেই।

এরপর বিএনপি-জামায়াতকে উদ্দেশ্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, দেশে আজ আমাদের বিরোধীরা চুপচাপ বসে নেই। তারা সরকারকে হটানোর জন্য নানামুখী তৎপরতা চালাচ্ছে।

সরকারের বিরুদ্ধে যে কোনো চক্রান্ত মোকাবিলার জন্য আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সর্বাত্মক প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

দলের ২১তম জাতীয় সম্মেলনের বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, জাতীয় সম্মেলনকে ঘিরে ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা-জাগরণ দেখতে পাচ্ছি। এরই মধ্যে ২৯টি জেলার সম্মেলনের কাজ শেষ করেছি। এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া। আমরা মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটিগুলো নতুন করে দিয়েছি।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

আর্কাইভ

জানুয়ারি ২০২০
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« ডিসেম্বর    
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com