আবদুল হাই বাচ্চুর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া উচিত: অ্যাটর্নি জেনারেল

প্রকাশিত: ৯:৪৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৮, ২০১৯

আবদুল হাই বাচ্চুর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া উচিত: অ্যাটর্নি জেনারেল

বেসিক ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল হাই বাচ্চুর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

তিনি বলেছেন, ‘ব্যাংক ক্ষতির সম্মুখীন হলে পরিচালনায় যারা থাকেন তারা দায়ী হতে বাধ্য। সবার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয়া উচিত।’ বৃহস্পতিবার নিজ কার্যালয়ে বেসিক ব্যাংক কেলেঙ্কারির বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, ‘আমাদের সংসদ সদস্যের (ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস এমপি) সঙ্গে একমত হয়ে বলব- বেসিক ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল হাই বাচ্চুর বিরুদ্ধে অবিলম্বে পদক্ষেপ নেয়া উচিত। যে ব্যাংক নানারকম ক্ষতির সম্মুখীন হবে সে ব্যাংকের যে বোর্ড অথবা ডাইরেক্টর্স যারা থাকবেন তারা দায়ী হবেন। অন্ততপক্ষে তাদের ব্যাখ্যা দিতে হবে।’ তিনি বলেন, ‘কোনো অলৌকিক কারণে বেসিক ব্যাংকটি বসে যায়নি। নিশ্চয় মানবগঠিত নানারকম দুর্নীতির কারণে ব্যাংকটি বসে গেছে।’

উল্লেখ্য, ১৪ অক্টোবর বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারির ঘটনায় ব্যাংকটির সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল হাই বাচ্চুর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন সরকারদলীয় এমপি শেখ ফজলে নূর তাপস। দায়িত্ব পালন করতে ব্যর্থ অভিযোগ এনে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যানের অবশ্যই পদ থেকে সরে যাওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এক প্রশ্নের জবাবে মাহবুবে আলম বলেন, দুর্নীতি দমন কমিশনে যারা আছেন তারা সবাই সাধু এটা বলার কোনো কারণ নেই। বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারির বিষয়ে শুধু দুর্নীতি দমন কমিশন কেন, আমি মনে করি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীতে যারা আছে, পুলিশ, র‌্যাব, এনবিআর সবার এটা আলাদা তদন্ত করা দরকার।’

তিনি বলেন, ‘দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান আসার পর অনেকগুলো সিদ্ধান্ত হয়েছে। অনেকগুলো কাজ হয়েছে আমরা দেখেছি। সবচেয়ে বড় কথা হল উনি অভ্যন্তরীণ অনেকগুলো বিষয় সংস্কার করেছেন। একটা স্বচ্ছতা আনার চেষ্টা করছেন। আমার কাছে মনে হয়েছে উনি (দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান) যথেষ্ট কর্মঠ।’

আর্কাইভ

জুলাই ২০২০
রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
« জুন    
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com