রোহিঙ্গা কিশোরী ধর্ষণে সেনা সদস্যের সম্পৃক্ততা পেলে কঠোর ব্যবস্থা: সেনাপ্রধান

প্রকাশিত: ৮:০২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১০, ২০১৯

রোহিঙ্গা কিশোরী ধর্ষণে সেনা সদস্যের সম্পৃক্ততা পেলে কঠোর ব্যবস্থা: সেনাপ্রধান

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় সেনা সদস্যদের সম্পৃক্ততার প্রমাণ মিললে অভিযুক্তরা চাকুরিচ্যুত তো হবেই, তাদের সিভিল কারাগারেও পাঠানো হবে বলে মন্তব্য করেছেন সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ।

বৃহস্পতিবার সকালে বগুড়া সেনানিবাসের ষষ্ঠ সাঁজোয়া কোরের পুনর্মিলনী আয়োজনে অংশ নেয়ার পর গণমাধ্যমকে এসব কথা বলেন তিনি।

সেনাপ্রধান বলেন, সেনাবাহিনী বিষয়টি স্বচ্ছতার সঙ্গে খতিয়ে দেখছে। রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আশ্রিতদের গতিবিধি নিয়ন্ত্রণসহ নিরাপত্তার স্বার্থে সবগুলো ক্যাম্পে কাঁটাতারের বেড়া দেয়া হচ্ছে। শিগগিরই সাতটি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণে কাজ শুরু করবে সেনাবাহিনী।

সেনাবাহিনীতে অস্বচ্ছতার কোনো সুযোগ নেই উল্লেখ করে আজিজ আহমেদ বলেন, ধর্ষণের ঘটনাস্থলে শুধু সেনাটহলই ছিলো না, অন্যান্য বাহিনীর টহলদলও ছিলো। কিন্তু আমরা অভিযোগ আসার সাথে সাথে টহলরত সেনা সদস্যদের ক্লোজড করেছি। একজন ব্রিগেডিয়ার জেনারেলের নেতৃত্বে তদন্ত আদালতও গঠন করা হয়েছে। যদি কোনো সদস্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হয়, তাকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনা হবে।

১ অক্টোবর টেকনাফ লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সি-২২ এর বাসিন্দা এক কিশোরী হ্নীলার রঙ্গীখালী এলাকায় গেলে ধর্ষণের শিকার হয়। এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার রাতে ভুক্তভোগীর বাবা বাদী হয়ে টেকনাফ মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

আর্কাইভ

মে ২০২০
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« এপ্রিল    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com