ধর্ষণের অভিযোগে বরখাস্ত পল্টন থানার ওসি

প্রকাশিত: ১১:২২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৯

বিয়ের অঙ্গীকার করে এক তরুণীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ার সত্যতা পাওয়ায় রাজধানীর পল্টন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হককে সাময়িক বরখাস্ত (সাসপেন্ড) করা হয়েছে।

সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) ডিএমপি সদর দপ্তর এ আদেশ দিয়েছে। প্রায় দেড় বছর তরুণীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক ছিল ওসির। মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর বিয়ের জন্য চাপ দিলে গত এপ্রিলে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন তিনি।

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গণমাধ্যম ও জনসংযোগ শাখার উপ-কমিশনার মাসুদুর রহমান বলেন, ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় ওসি মাহমুদুল হককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তাকে ডিএমপির কেন্দ্রীয় সংরক্ষণ দপ্তরে সংযুক্ত করা হয়েছে।

এর আগে গত ১ আগস্ট ওই তরুণী পুলিশ মহাপরিদর্শকের (আইজিপি) কাছে মাহমুদুলের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন। তাতে বলা হয়, মাহমুদুল ২০১৭ সালের ২১ সেপ্টেম্বর চাকরির কথা বলে তাকে ঢাকায় ডেকে আনেন। তাকে পল্টনের হোটেল ক্যাপিটালে ওঠান তিনি। খাবারের সঙ্গে নেশাজাতীয় কিছু খাইয়ে তাকে ধর্ষণ করেন ওসি। এ নিয়ে মেয়েটির সঙ্গে বাকবিতণ্ডা হয় তার। ওসি তাকে ভালোবাসেন বলে জানান। পরে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দেন। এরপর প্রায় দেড় বছর ধরে মেয়েটির সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক বজায় রাখেন তিনি। গত বছরের অক্টোবরে তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর বিয়ের জন্য চাপ দিতে থাকেন ওসিকে। ওসি বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে গর্ভের সন্তান নষ্ট করে ফেলতে বাধ্য করেন। এরপর বিয়ে না করে টালবাহানা শুরু করেন। এ ঘটনায় আত্মহত্যার চেষ্টা করেন তরুণী।

অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত করেন পুলিশের মতিঝিল বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মোনালিসা বেগম। এতে তরুণীর অভিযোগের সত্যতা মেলে। এর পরই ডিএমপি সদর দপ্তর হয়ে প্রতিবেদনটি পাঠানো হয় পুলিশ সদর দপ্তরে।

আর্কাইভ

অক্টোবর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« সেপ্টেম্বর    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com