বিয়ানীবাজারে প্রাইভেটকার থেকে ৩০৫ পিস ইয়াবাসহ আটক ৩

প্রকাশিত: ৯:০৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯

বিয়ানীবাজারে প্রাইভেটকার থেকে ৩০৫ পিস ইয়াবাসহ আটক ৩

সিলেটের বিয়ানীবাজার প্রাইভেট কার থেকে ৩০৫ পিস ইয়াবাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশের মাদক বিরোধী সেল।

মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) রাতে জেলায় মাদক ও চোরাচালান বিরোধী অভিযানে গোপন তাদের আটক করে বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

অভিযানে নেতৃত্ব দেন মাদক বিরোধী সেলের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক সজল কুমার কানু।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে পুলিশ জানায়, বিয়ানীবাজার থানার এলাকার চারখাই বাজারে অবস্থানকালে মাদকবহনকারী প্রাইভেট কার নং- ঢাকা মেট্রো-ক ০৩-৭১১৩ নং গাড়িকে থামার জন্য সংকেত প্রদান করেন। গাড়িটি পুলিশের সংকেত অমান্য করে বেপরোয়া গতিতে সিলেটের দিকে যেতে থাকে। মাদক বিরোধী সেলের পুলিশ সদস্যরা ধাওয়া করে গাড়িটি বিয়ানীবাজার থানাধীন আলীনগর ইউনিয়নের অন্তর্গত চন্দরপুর নামক স্থানে আটক করতে সক্ষম হন।

পুলিশ আরো জানায়, এ সংক্রান্তে মাদক বিরোধী সেল সিলেটের এসআই মৃদুল কুমার ভৌমিক বাদী হয়ে বিয়ানীবাজার থানায় নিয়মিত মামলার রুজুর জন্য এজাহার দাখিল করলে ২০১৮ সনের মাদক আইনের ৩৬(১) এর ১০(ক)/৩৮ মোতাবেক বিয়ানীবাজার থানার মামলা নং-১৩ তারিখ- ১১-০৯-২০১৯ খ্রিঃ রুজু করা হয়। আসামিদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। বর্তমানে মামলাটি তদন্তাধীণ।

আটককৃত আসামিদের নাম ও ঠিকানা- গোলাপগঞ্জ থানার হাজিপুর ঘনশ্যাম সাকিনের অলিউর রহমানের ছেলে মো. শহিদুর রহমান (২৮) ফুলবাড়ী পূর্বপাড়া সাকিনের রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে মো. জয়নুল ইসলাম (২৪) এবং একই উপজেলার সরস্বতী নিজগঞ্জ সাকিনের ইমতিয়াজ আলীর ছেলে মো. শাহেদ (২৮)।

এছাড়াও আটক আসামী শহিদ ও জয়নুলের বিরুদ্ধে ডাকাতি, মোটরসাইকেল চুরি, মারামারি সংক্রান্তে ওসমানীনগর ও গোলাপগঞ্জ থানায় মোট ৮ টি মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

এ ব্যাপারে সিলেট জেলার পুলিশ সুপার বলেন, জেলার সীমান্তবর্তী কোন থানাকে মাদকের নিরাপদ রুট হিসেবে গড়ে উঠতে দেয়া হবে না। এ জন্য জেলা পুলিশের এ চলমান অভিযান অব্যাহত থাকবে।

আর্কাইভ

ফেব্রুয়ারি ২০২০
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« জানুয়ারি    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com