এক ব্যানার নিয়ে তোলপাড়

প্রকাশিত: ৯:৪৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৩, ২০১৯

এক ব্যানার নিয়ে তোলপাড়

সিলেট নগরীর সুরমা মার্কেটের উপরের বিলবোর্ডে একটি ব্যানার লাগানো নিয়ে তোলপাড় চলছে। এই ব্যানার নিয়ে বিতর্কের মুখে পড়েছেন সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক)-এর নামে বিলবোর্ডে ব্যানার লাগানো হলেও এ বিষয়ে নিজেরা অবগত নয় বলে জানিয়েছে সিসিক কর্তৃপক্ষ। বিতর্ক এড়াতে সিটি মেয়র এ ঘটনায় তদন্তে তিন সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন করেছেন। ব্যানার টানানোর সিসিটিভি ফুটেজ চেয়েছেন পুলিশের কাছে।

জানা যায়, সিলেট জেলা যুবলীগের সম্মেলনের সময় নগরীর সুরমা মার্কেটের উপরে একটি বিলবোর্ড ব্যানার লাগিয়েছিলেন জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম। এতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতা এবং সিলেট আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের ছবি ছিল।

যুবলীগের নেতাকর্মীদের অভিযোগ, বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ঢেকে ঈদের আগে এই বিলবোর্ডের উপর ঈদের শুভেচ্ছা ও যথাস্থানে কোরবানির আহবান জানিয়ে সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে একটি ব্যানার লাগানো হয়।

এজন্য ফেসবুকে সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর সমালোচনা করতে দেখা যায় ক্ষমতাসীন দলের অনেক নেতাকর্মীকে।

তবে এই ব্যানার টানানোর সাথে সিটি করপোরেশন সৃম্পৃক্ত নয় বলে দাবি করে আসছেন সিটি মেয়র। এটি ষড়যন্ত্রের অংশ হতে পারে বলেও দাবি এই বিএনপি নেতার।

সিসিক কর্মকর্তারা জানান, ঈদে যথাস্থানে কোরবানির আহ্বান জানিয়ে নগরের মদিনা মার্কেট, আম্বরখানা, রিকাবীবাজার, হুমায়নরশিদ চত্বর ও মুক্তিযোদ্ধা চত্বরের বিলবোর্ডে সিসিকের পক্ষ থেকে ব্যানার লাগানো হয়। সুরমা মার্কেটের উপরের বিলবোর্ডে সিসিকের পক্ষ থেকে কোনো ব্যানার লাগানো হয়নি।

তবে ওই ব্যানারটি নিয়ে ফেসবুকসহ বিভিন্ন মাধ্যমে সমালোচনা শুরু হলে গত মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) সিসিকের কর্মকর্তা ও পুলিশ প্রশাসন নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। তখন মেয়রের নির্দেশে ব্যানারটি খুলে ফেলা হয়।

পরে এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিধায়ক রায় চৌধুরীকে প্রধান করে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। কমিটি অন্য সদস্যরা হচ্ছেন প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমান ও নির্বাহী প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) রুহুল আলম। এছাড়া সিসিটিভি ফুটেজ পরীক্ষা করে এ ঘটনার প্রতিবেদন প্রদানের জন্য সিলেট কোতোয়ালী থানার ওসিকে লিখিতভাবে অনুরোধ জানান মেয়র।

এ ব্যাপারে নির্বাহী প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) রুহুল আলম  বলেন, গত ১০ আগস্ট নগরের মদিনা মার্কেট, আম্বরখানা, রিকাবীবাজার, হুমায়নরশিদ চত্বর ও মুক্তিযোদ্ধা চত্বরের বিলবোর্ডে সিসিকের পক্ষ থেকে ব্যানার লাগানো হয়। সুরমা মার্কেটের বিলবোর্ডে আমরা ব্যানার লাগাইনি। কারা এই কাজ করেছে তার সঠিক তথ্য জানা দরকার তাই মেয়র সাহেব ৩ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি করে দিয়েছেন।

সিলেট সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা শাহাব উদ্দিন শিহাব বলেন, সুরমা মার্কেটে যে ব্যানারটি লাগানো হয়েছিল সেটি সিলেট সিটি করপোরেশনের নয়। এ কারণে বুধবার মেয়র সাহেব সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিধায়ক রায় চৌধুরীকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি করেছেন। যে স্থানে ব্যানার লাগানো ছিল সেখানে ও তার আশপাশ এলাকায় পুলিশের সিসি ক্যামেরা রয়েছে। এ কারণে মেয়র সিসিটিভির ফুটেজ চেয়ে সিলেটের কোতোয়ালি থানার ওসির কাছে পত্র পাঠিয়েছেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

আর্কাইভ

এপ্রিল ২০২০
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« মার্চ    
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com