পাকিস্তানকে সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে ভারতের অনুরোধ

প্রকাশিত: ৩:২৭ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৮, ২০১৯

পাকিস্তানকে সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে ভারতের অনুরোধ

কাশ্মীর নিয়ে ভারতের সঙ্গে কূটনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিন্ন করার বিষয়ে পাকিস্তানকে তার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে বলেছে নয়াদিল্লি। যাতে করে দুই দেশের কূটনৈতিক যোগাযোগের স্বাভাবিক পথ খোলা থাকে। খবর এনডিটিভি।

বৃহস্পতিবার ভারতের পররাষ্ট্র দফতর থেকে পাকিস্তানকে এ অনুরোধ করা হয়। এর আগে বুধবার পাকিস্তানে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনারকে বহিষ্কার করে ইসলামাবাদ। পাশাপাশি ভারতের বিরুদ্ধে পাঁচ পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করা হয় পাকিস্তানের পক্ষ থেকে। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ভারতের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি ঘটানো ও দ্বিপক্ষীয় চুক্তি বাতিল করা।

পাকিস্তানের এমন পদক্ষেপে বৃহস্পতিবার ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী একটি বিবৃতি দিয়েছেন। এতে তিনি বলেছেন, আমরা দেখেছি পাকিস্তান ভারতের সঙ্গে তাদের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের ক্ষেত্রে একতরফা সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পাকিস্তানের এ সিদ্ধান্ত অবশ্যই আমাদের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের ফাটল ধরাচ্ছে।

ভারত সরকার এক বিবৃতিতে বলেছে, সম্প্রতি ৩৭০ ধারার যে পরিবর্তন হয়েছে তা ভারতের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। ভারতীয় সংবিধান ছিল, আছে এবং সর্বদা একটি সার্বভৌম বিষয় হয়ে থাকবে।

এতে বলা হয়, ভারত সরকার এবং সংসদের সাম্প্রতিক সিদ্ধান্তের পেছনে রয়েছে জম্মু ও কাশ্মীরের উন্নয়নের সুযোগকে বাড়ানো, যা সংবিধানের একটি অস্থায়ী বিধানের কারণে আটকে ছিল। ফলে লিঙ্গ ও আর্থ-সামাজিক বৈষম্যও ঘুচবে। আরও আশা করা হচ্ছে- এর ফলে জম্মু ও কাশ্মীরের সব মানুষের অর্থনৈতিক সক্রিয়তা ও উন্নয়নের ক্ষেত্রে জোয়ার আসবে।

ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়, এতে অবাক হওয়ার কিছু নেই, এ ধরনের উন্নয়নমূলক পদক্ষেপকে পাকিস্তান ঋণাত্মকভাবে প্রচার করবে। সীমান্ত এলাকায় সন্ত্রাসবাদ ছড়াতে এ সম্পর্কে কোনো আবেগকে কাজে লাগানো হতে পারে।

এর আগে বুধবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে শীর্ষ নিরাপত্তা কমিটির বৈঠকে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলে বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করা হয়।

বৈঠকে পাক-ভারত দ্বিপক্ষীয় চুক্তি নিয়ে পর্যালোচনা করার সিদ্ধান্ত হয়। এ ছাড়া বিষয়টি জাতিসংঘে উত্থাপন ও আগামী ১৪ আগস্ট কাশ্মীরিদের সঙ্গে সংহতি জানিয়ে আসন্ন স্বাধীনতা দিবস পালনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বৈঠক শেষে এক বিবৃতিতে বলা হয়, ভারতীয় নির্মম বর্ণবাদী শাসন ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা প্রকাশের জন্য সব কূটনৈতিক চ্যানেলকে সক্রিয় করতে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

আর্কাইভ

ডিসেম্বর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« নভেম্বর    
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com