রেল সেতুতে বাঁশ, নাট আটকানো দড়ি দিয়ে

প্রকাশিত: ১:১১ অপরাহ্ণ, জুন ২৮, ২০১৯

রেল সেতুতে বাঁশ, নাট আটকানো দড়ি দিয়ে

সিলেট-আখাউড়া সেকশনের রেল লাইন দীর্ঘদিন ধরেই ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে। এ কারণে বারবার ঘটছে দুর্ঘটনা। বারবার দুর্ঘটনার পরেও এই লাইন সংস্কারে তেমন উদ্যোগ নেই। এর মধ্য গত রোববারবে রেল দুর্ঘটনায় আবারো আলোচনায় উঠে এসেছে এই রেল লাইন।

আখাউড়া-সিলেট রেলপথের প্রতিটি স্লিপারে যেনো মৃত্যুফাঁদ পাতা আছে। জরাজীর্ন রেললাইন, স্থানে স্থানে স্লিপারে নেই নাট বল্টু, রেল ব্রিজ বাঁশ দিয়ে মেরামত করা- এমন নানা কারণে রেলের এই সেকশনটি ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে।

সরজমিনে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল স্টেশনের ১ কিলোমিটার দূরে আউট সিগনাল এলাকায় খালের উপর একটি সেতুতে গিয়ে দেখা যায়, এই সেতুর ৮ টি স্লিপারে যেখানে ৬৪ নাট থাকার কথা সেখানে নাট আছে ৩৫ টি। এর পাশেই দুইটি পাতের সংযোগ স্থলে একটাতে নেই নাট-বল্টু। অন্য দুইটি যেনো খুলে না যায় তাই আটকানো আছে দড়ি দিয়ে।

অন্যদিকে এই সেতুর পাশে একটানা ৩০ স্লিপারে কোনটাতেই নাট বল্টু নেই। প্রতিটি স্লিপারে দুইপাশে দুটি করে পেরেক মেরে রাখা হয়েছ। ফলে যেকোন মুহুর্তে বড়ধরণের দুর্ঘটনার শঙ্কা রয়েছে।

রেল কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, ঢাকা- সিলেট- চট্টগ্রাম রেলপথে পারাবত, জয়ন্তীকা, পাহাড়িকা, উদয়ন, উপবন ও কালনী এক্সপ্রেস নামের ৬টি আন্তঃনগর ট্রেন প্রতিদিন দুইবার করে ১২ বার আসা-যাওয়া করে। আর এই পথে প্রতিদিন আসা-যাওয়া করেন অন্তত ২৫/৩০ হাজার যাত্রী।

স্থানীয় যুবক আবুল কালাম জানান, শ্রীমঙ্গল থেকে কমলগঞ্জ পর্যন্ত অন্তত ২০ টি ব্রিজ আছে যার অর্ধেকের বেশী সেতুতে বাশ দিয়ে মেরামত করা।

এ ব্যাপারে সিলেট রেলওয়ে স্টেশনের সহকারী স্টেশন ম্যানেজার সজিব কুমার মালাকার বলেন, এই সেকশনের বেশিরভাগ রেললাইনই পুরোনো ও ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে।

আর্কাইভ

অক্টোবর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« সেপ্টেম্বর    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com