১৭ রাজ্যে ধুয়েমুছে সাফ নামগন্ধ নেই কংগ্রেসের

প্রকাশিত: ১২:১১ অপরাহ্ণ, মে ২৫, ২০১৯

১৭ রাজ্যে ধুয়েমুছে সাফ নামগন্ধ নেই কংগ্রেসের

২০১৯-এর লোকসভা যুদ্ধে মোদি সরকারকে হারানোর শপথ নিয়েছিল কংগ্রেস। ২০১৮ সালে পাঁচ রাজ্যের সেমিফাইনালে (বিধানসভা নির্বাচন) তিন রাজ্য দখল করে প্রতিজ্ঞায় আরও বেগ এনেছিলেন সভাপতি রাহুল গান্ধী।

কিন্তু বড় মাঠে এসে বিজেপিকে প্যাভিলিয়নে পাঠাতে গিয়ে একে এক ১৭ রাজ্য থেকে ধুয়েমুছে সাফ হয়ে গেল ভারতের এ ঐতিহাসিক দলটি ।একই অবস্থা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলোতেও। নামগন্ধ পর্যন্ত নেই কংগ্রেসের। যেন নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে একেবারে। সবচেয়ে বেশি ভরাডুবি হয়েছে উত্তরপ্রদেশে।

গো-বলয়ের সুরক্ষিত এ দুর্গ ভাঙতে সবচেয়ে শক্তিশালী অস্ত্র শানিয়েছিল কংগ্রেসও- প্রিয়াংকা জাদু। কিন্তু শেষপর্যন্ত হালে পানি পায়নি কংগ্রেস। প্রবল মোদিঝড়ে ধোপে টিকল না প্রিয়াংকা ক্যারিশমাও।

মাসভর রাজ্যের ৩১ আসনে প্রচার চালিয়ে ভোট শেষে ৩০ আসনেই শূন্য! ভোটের মাত্র কয়েক দিন আগে রাজনীতিতে সরাসরি যোগ দেন প্রিয়াংকা গান্ধী। তাকে দলের অন্যতম সাধারণ সম্পাদক করে দেয়া হয় এবং উত্তরপ্রদেশ পূর্বের ভোটের দায়িত্ব বোনের হাতে তুলে দেন দলের সভাপতি রাহুল গান্ধী।

দলীয় সূত্রে খবর, এ বছর লোকসভা ভোটের প্রচারে প্রিয়াংকা গান্ধী উত্তরপ্রদেশের মোট ৩১টি আসনে জোর প্রচার চালান। ভোটের ফলাফলচিত্রে দেখা যাচ্ছে, প্রিয়াংকার প্রচার করা ৩১টি কেন্দ্রের মধ্যে ৩০টিতে বিজেপির কাছে কংগ্রেসের শোচনীয় পরাজয় হয়েছে।

এমনকি কয়েকটি কেন্দ্রে ভিড় উপচে পড়লেও ভোট বাক্সে তার প্রতিফলন প্রিয়াংকাকে ঘিরে দেখা যায়নি। ফলে লোকসভা নির্বাচন প্রমাণ দিলো, প্রিয়াংকা গান্ধীর প্রচারে লোকের ভিড় হলেও ভোটের বাক্সে তার কোনও প্রতিফলন পড়েনি এবং বিজেপি সেই সুযোগে বাজি মেরে বেরিয়ে গেছে। শুধু উত্তরপ্রদেশ নয়, সারা ভারতেই একই হাল কংগ্রেসের।

আন্দামান নিকোবরে একটি মাত্র লোকসভা কেন্দ্র। এই কেন্দ্র এবার বিজেপির দিকে ঢলে পড়েছে। অন্ধ্রপ্রদেশে ২৫টি লোকসভা আসন। তার মধ্যে জগনমোহন রেড্ডির ওয়াইএসআর কংগ্রেস পেয়েছে ২২টি আসন। তেলেগু দেশম পার্টির দখলে তিনটি আসন। কংগ্রেস শূন্য। অরুণাচল প্রদেশে মোট আসন দুটি।

এই দুটি আসনই এবার দখল করেছে বিজেপি। কংগ্রেস এখানে খাতা খুলতে পারছে না। চণ্ডীগড়ে একটি মাত্র কেন্দ্র এই কেন্দ্রটিও যায় বিজেপির দখলে। ফলে কংগ্রেস এবারও খাতা খুলতে পারেনি। দাদরা নগর হাভেলিতে একটি মাত্র আসন। এই আসনটিও বিজেপি দখল করল। এখানেও শূন্য হাত কংগ্রেসের।

রাজধানী দিল্লি কংগ্রেসকে আরও একবার হতাশ করেছে। সাতটি কেন্দ্র দিল্লিতে। এই সাতটি কেন্দ্রে জিতে ক্লিন সুইপ করে গেছে বিজেপি।

মোদির রাজ্য গুজরাটে এবারও ২৬-এ ২৬ বিজেপি। কংগ্রেস শূন্য। গুজরাট বিধানসভা কংগ্রেস লড়াই দিলেও লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেস একটি আসনেও জিততে পারল না।

হরিয়ানায় আবার ক্লিন সুইপ। ১০টি আসনেই কংগ্রেস ধূলিসাৎ। বিজেপি ১০ আসনেই জয়ী। হিমাচল প্রদেশের চারটি লোকসভা কেন্দ্র। এই চারটিতেই কংগ্রেস পরাজিত হয়েছে।

জম্মু ও কাশ্মীরে কংগ্রেস এবার খাতা খুলতে পারল না। ৬টি আসনের মধ্যে বিজেপি তিনটি ও ন্যাশনাল কনফারেন্স তিনটি আসনে জয়ী হল। মণিপুরেও কংগ্রেস শূন্য।

আর্কাইভ

নভেম্বর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« অক্টোবর    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com