প্রচ্ছদ

হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল থেকে নারীসহ দুই দালালকে কারাদণ্ড

প্রকাশিত হয়েছে : ৮:৪৮:৫৮,অপরাহ্ন ১৫ মে ২০১৯ | সংবাদটি ২৯ বার পঠিত

সিলেটেরকন্ঠডটকম

হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতাল থেকে নারীসহ দুই দালালকে কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।

বুধবার (১৫ মে) বিকেলে নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট রাসনা শারমিন লীপি তাদেরকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড প্রদান কেন।

এর আগে বুধবার দুপুরে সদর মডেল থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) আতাউর রহমান ও হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ রতীন্দ্র চন্দ্র দেবের নেতৃত্বে যৌথ অভিযান চালিয়ে আটক করা হয়।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বহুলা গ্রামের সরুফা আক্তার (৩৬) ও শহরের ইনাতাবাদ এলাকার সিরাজ মিয়া (৪০)।

নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট রাসনা শারমিন লীপি জানান, আটককৃত দুই জন হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালের দালাল চক্রের তালিকাভুক্ত সদস্য। তারা দীর্ঘদিন যাবত হাসপাতালে আসা রোগীদের সাথে প্রতারণা করে এবং বিভিন্নভাবে তাদের প্রলোভন দিয়ে রোগীদের হাসপাতাল থেকে প্রাইভেট ক্লিনিকে নিয়ে যেত। আর তার বিনিময়ে তারা তাদের ভাগের টাকা আদায় করে নিত। সম্প্রতি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দালাল নির্মূলে একটি কমিটি গঠন করে দালালদের একটি তালিকা প্রণয়ন করে। এরই ধারাবাহিকতায় দুই দালালকে আটক করে পুলিশ। পরে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে সিরাজুল ইসলামকে এক মাসের ও স্বরুপা আক্তারকে ১৫ দিনের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

এদিকে, জেলার চুনারুঘাটে লাইসেন্স না থাকায় ৩টি করাত কল (স’ মিল) মালিককে ২১ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত।

বুধবার (১৫ মে) দুপুরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাসনা শারমিন লীপি ও জান্নাত আরা লিসার এ জরিমানা প্রদান করেন।

জরিমানাপ্রাপ্ত করাত কলগুলো হল- ফজল মিয়া স’মিল, ইসমাইল মিয়া স’মিল ও সরাজ মিয়া স’মিল।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাসনা শারমিন লীপি জানান, ওই করাত কলগুলো লাইসেন্স না নিয়েই দীর্ঘদিন যাবত ব্যবসায়ীক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল। এছাড়াও বন থেকে চোরাইকৃত কাঠ এনে করাতগুলোর মাধ্যমে ছিড়ানো হয় বলেও অভিযোগ রয়েছে। বুধবার অভিযান চালিয়ে লাইসেন্স না থাকায় তাদেরকে ৭ হাজার টাকা করে মোট ২১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com