প্রচ্ছদ

ভারতে রোগীর পেটে কাঁচি রেখেই অপারেশন শেষ করলেন ডাক্তার

প্রকাশিত হয়েছে : ১২:২৫:৫৬,অপরাহ্ন ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | সংবাদটি ১২ বার পঠিত

সিলেটেরকন্ঠডটকম

তিন মাস আগে হাসপাতালে অস্ত্রোপচার হয় এক নারীর। হাসপাতাল ছেড়ে বাড়ি ফেরার পর থেকেই অন্যরকম এক যন্ত্রণায় ভুগতে থাকেন তিনি।

পেটে মারাত্মক যন্ত্রণা হতে থাকে। আবার চিকিৎসকের স্মরণাপন্ন হন।

পেটে একটি সার্জিক্যাল কাঁচি ধরা পড়ে এক্স-রেতে। অপারেশনের সময় কাঁচিটি ওই নারীর পেটে রেখে দিয়েছিল শল্য চিকিৎসকেরা। যে কারণে যন্ত্রণায় ভুগছেন তিনি।

এ ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের হায়দ্রাবাদের বিখ্যাত নিজাম ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্সে (এনআইএমএস) হাসপাতালে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভিতে প্রকাশ হয়েছে ঘটনাটি।

খবরে বলা হয়েছে, এনআইএমএস হাসপাতালে তিন মাস আগে অস্ত্রোপচার হয় ৩৩ বছর বয়সী ওই নারীর।

বাড়ি ফিরে যন্ত্রনা শুরু হলে একসময় অতিষ্ট হয়ে আবার একই হাসপাতালে যান তিনি।

এক্স-রে করানো হয় তার। রিপোর্ট দেখেই চমকে ওঠেন চিকিৎসকরা।

পেটের মধ্যেই অপারেশনে ব্যবহৃত কাঁচি রেখে দিয়েছিলেন চিকিৎসক!

গত রোববার সকালে আবার তার অস্ত্রোপচার করে ওই বের করা হয়।

এ ঘটনায় এনআইএমএসের পরিচালক কে মনোহর দুঃখ প্রকাশ করে এনডিটিভিকে বলেন, ‘ এটা অনাকাংক্ষিত। আমরা দ্রুত ওই নারীর পেট থেকে কাঁচিটি বের করে দিয়েছি।’

এর জন্য দায়ি শল্য চিকিৎসকের বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ হবে বলে আশ্বাস দেন তিনি।

তবে ওই নারীর স্বামী দুজন চিকিৎসকের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন বলে জানা গেছে।

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com