প্রচ্ছদ

ভারতে জাতীয় সঙ্গীত না গাওয়ায় মুসলিম শিক্ষক লাঞ্ছিত

প্রকাশিত হয়েছে : ১১:১৯:৪৩,অপরাহ্ন ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | সংবাদটি ২৪ বার পঠিত

সিলেটেরকন্ঠডটকম

ভারতের বিহারে জাতীয় সঙ্গীত না গাওয়ায় স্কুলশিক্ষক আফজাল হোসেনকে পিটিয়ে আহত করেছে স্থানীয়রা। ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৬ জানুয়ারি বিহারের কাতিহার জেলায়। গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের বরাত দিয়ে তুরস্কভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ইয়েনি শাফাকের এক প্রতিবেদনে বলা হয় ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে জাতীয় সঙ্গীতে ‘ভান্দে মাতারাম’ থাকায় তিনি জাতীয় সঙ্গীত গাননি।

স্কুলশিক্ষকের ওপর স্থানীয়দের হামলার ঘটনা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সম্প্রতি ভাইরাল হয়।

আফজাল হোসেন এএনআই সংবাদ সংস্থাকে বলেন, আমরা আল্লাহকে বিশ্বাস করি; ভান্দে মাতারাম আমাদের বিশ্বাসের পরিপন্থী। ভান্দানা বলতে বোঝায় পূজারত মাটির বন্দনা মানে যা আমরা বিশ্বাস করি না।

জেলা কর্তৃপক্ষ সাংবাদিকদের জানান, এ ঘটনায় আমরা কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে ঘটনার তদন্ত করা হবে।

অনেক মুসলমান বলছেন, সংস্কৃত ভাষায় গান হিন্দু দেবী ‘দুর্গা’, যা ইসলামের মৌলিক নীতির পরিপন্থী।

১৮৭৬ সালে বাঙালি কবি বঙ্কিম চন্দ্র চট্টোপাধ্যায় ভারতের জাতীয় সঙ্গীত লিখেছেন।

509Shares
WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com