সিলেট-০৫ আসনে জমিয়ত বিভক্ত, উবায়দুল্লাহ ফারুক বিপাকে

প্রকাশিত: ৫:৫৩ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৮

সিলেট-০৫ আসনে জমিয়ত বিভক্ত, উবায়দুল্লাহ ফারুক বিপাকে

বিশেষ প্রতিনিধি : সিলেট-০৫ (কানাইঘাট-জকিগঞ্জ) আসনে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি শায়খুল হাদিস মাওলানা উবায়দুল্লাহ ফারুক। যিনি সর্বশেষ ২০০৮ সালের নির্বাচনে চার দলীয় জোটের বিদ্রোহী প্রার্থী ছিলেন। সে নির্বাচনে তিনি ৮,৯৪৬ ভোট পেয়েছিলেন এবং তার জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছিল।

এ আসনে বিগত দুটি নির্বাচনে বিএনপি জোটের প্রার্থী ছিলেন জামায়াতের মাওলানা ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তার ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হবার কথা ছিল কিন্তু শেষ মুহুর্তে ঐক্যফ্রন্টের মনোনয়ন তুলে দেওয়া হয় উবায়দুল্লাহ ফারুকের হাতে। এ নিয়ে স্থানীয় জামায়াত ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী থেকে অনেকটাই মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। জামায়াত মুখ ফিরিয়ে নেওয়ায় অস্বস্তিতে পড়েছেন ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী কারণ এ আসনে জামায়াতের বিশাল ভোট ব্যাংক রয়েছে।

এদিকে উবায়দুল্লাহ ফারুকের নিজ দল জমিয়ত এ আসনে বিভক্ত। ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে জমিয়তের খেজুর গাছ প্রতীকের প্রার্থী মাওলানা আলিমুদ্দীন দুর্লভপুরীর বর্তমান দল জমিয়তে উলামা বাংলাদেশ উবায়দুল্লাহ ফারুকের সাথে নেই বলে জানা গেছে। এ আসনে আলিম উলামদের মধ্যে দুর্লভপুরীর প্রচুর অনুসারী রয়েছেন, তিনি ১৯৯৬ এর নির্বাচনে এ আসনে ১৩,৩২৫ ভোট পেয়েছিলেন। সে হিসাবে জামায়াত এবং দুলর্ভপুরীর অনুসারীদের উবায়দুল্লাহ ফারুক ম্যানেজ করতে না পারলে আসন্ন নির্বাচনে তিনি ভরাডুবিতেই পড়তে যাচ্ছেন বলে সাধারণ ভোটারদের ধারণা।

এসব বিষয়ে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম  বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় এক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, উবায়দুল্লাহ ফারুক কানাইঘাট দারুল উলুম মাদ্রাসায় মরহুম আল্লামা মুশাহিদ বায়মপুরীর কবর জিয়ারত করতে গেলে দুলর্ভপুরী কিংবা মাদ্রাসার মুহতামিম মুহাম্মদ বিন ইদ্রিস শায়খে লক্ষীপুরীর সাথে সাক্ষাৎ করেননি। এ নিয়ে তারা ক্ষুব্ধ। তিনি আরো জানান, দুলর্ভপুরীর সাথে উবায়দুল্লাহ ফারুকের কোনো সমঝোতা হবার সম্ভাবনা নেই।

আর্কাইভ

অক্টোবর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« সেপ্টেম্বর    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com