প্রচ্ছদ

রাগীব আলী ‘বাগানের মালি’, ছেলে ‘লাইব্রেরিয়ান’

প্রকাশিত হয়েছে : ৭:৫১:২২,অপরাহ্ন ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | সংবাদটি ৪০ বার পঠিত

সিলেটেরকন্ঠডটকম

সিলেটের ব্যবসায়ী রাগীব আলী ও তার ছেলে আব্দুল হাই ধনাঢ্য জীবনযাপনে অভ্যস্ত। কোটি কোটি টাকার মালিক তারা। বিলাসবহুল তাদের জীবন। তবে কারাগারে থাকা রাগীব আলী ও তার ছেলে আব্দুল হাই বিলাসবহুল জীবনের ‘স্বাদ’ পাচ্ছেন না। বরঞ্চ সশ্রম কারাদ-ে দ-িত হওয়ায় তাদেরকে কাজ করতে হচ্ছে।

কারাসূত্রে জানা গেছে, কারাগারে থাকা রাগীব আলীকে বাগানে মালির কাজ দেয়া হয়েছে। তিনি বাগানে পানি দেয়ার কাজ করেন। তার ছেলে আব্দুল হাই কারাগারের লাইব্রেরিতে লাইব্রেরিয়ানের কাজ করছেন। কারাগারের কয়েদিদের বই দেয়া ও ফিরিয়ে আনার কাজ করেন তিনি।

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের জেল সুপার আবু সায়েম বলেন, ‘রাগীব আলী ও আব্দুল সশ্রম কারাদ-প্রাপ্ত কয়েদি। কারাবিধি অনুসারে, তাদেরকে কারাগারে কাজ করতে হবে। বয়স বিবেচনায় রাগীব আলীকে কারাগারের ফুল বাগানের মালির কাজ দেয়া হয়েছে। আর আব্দুল হাই কারাগারের লাইব্রেরিতে কাজ করেন।’

এক প্রশ্নের জবাবে আবু সায়েম বলেন, ‘রাগীব আলী ও আব্দুল হাইয়ের ডিভিশন আবেদন আমরা পেয়েছি। সিদ্ধান্ত নিতে আমরা মন্ত্রণালয়ে কাগজপত্র পাঠিয়েছি।’

জানা যায়, দেবোত্তর সম্পত্তি তারাপুর চা বাগানের বন্দোবস্ত নিয়ে ভূমি মন্ত্রণালয়ের স্মারক জালিয়াতির মামলায় গত বছরের ২ ফেব্রুয়ারি সিলেটের মুখ্য মহানগর হাকিম সাইফুজ্জামান হিরো রাগীব আলী ও তার ছেলের ১৪ বছরের সাজার রায় দেন। ওই সময় কয়েক মাস কারাভোগের পর জামিনে মুক্তি পান তারা। পরে রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন আসামিরা। আপিলের শুনানি শেষে গত ৯ আগস্ট সাজা বহাল রাখেন সিলেটের বিশেষ দায়রা জজ আদালত। একইসাথে উচ্চ আদালতের নির্দেশে জামিনে থাকা রাগীব আলী ও তার ছেলে আবদুল হাইকে ১৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আদালতে আত্মসমর্পণেরও নির্দেশ দেন বিচারক দিলিপ কুমার ভৌমিক।

ওই নির্দেশের পর গত ১২ সেপ্টেম্বর তারা আত্মসমর্পণ করলে তাদেরকে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দেন সিলেট মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক মোহাম্মদ মোস্তাইন বিল্লাহ।

প্রসঙ্গত, ১৯৯০ সালে ভূমি মন্ত্রণালয়ের স্মারক জালিয়াতি করে প্রতারণার মাধ্যমে ভুয়া সেবায়েত সাজিয়ে তারাপুর চা-বাগানের ৪২২ দশমিক ৯৬ একর দেবোত্তর সম্পত্তি দখল করেন রাগীব আলী। আদালত রায়ে এই সম্পত্তি প্রকৃত সেবায়েত পঙ্কজ গুপ্তকে বুঝিয়ে দিয়েছিলেন।

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com