মঙ্গলবার, ০৯ জানু ২০১৮ ১১:০১ ঘণ্টা

হাসপাতালে গৃহবধূর লাশ ফেলে পালিয়েছেন স্বামী

Share Button

হাসপাতালে গৃহবধূর লাশ ফেলে পালিয়েছেন স্বামী

শ্রীনগরে হাসপাতালের বেডে গৃহবধূর লাশ ফেলে পালিয়ে গেছে তার স্বামী।

মঙ্গলবার বিকাল ৪ টার দিকে শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে।

পরে পুলিশ হাসপাতাল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছেন।

নিহত হৃতিকা আক্তার (২৭) শ্যামসিদ্ধি গ্রামের সিরাজ তালুকদারের মেয়ে।

পুলিশ জানান, লাশের গলায় ফাঁসির চিহ্ন ও শরীরে আঘাতের দাগ রয়েছে।

নিহতের পরিবারের দাবি হত্যার পর লাশ ঝুলিয়ে ফাঁসির ঘটনা সাজানো হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, শ্যামসিদ্ধি গ্রামের আলতাফ তালুকদারের ছেলের সঙ্গে একই গ্রামের সিরাজ তালুকদারের মেয়ে হৃতিকা আক্তার (২৭) এর ৯ মাস পূর্বে প্রেম করে পালিয়ে বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকে বেকার সোহেল প্রায়ই যৌতুকের জন্য হৃতিকাকে মারধর করত। এনিয়ে দুই পরিবারে অশান্তি বিরাজ করছিল।

মঙ্গলবার বিকালে সোহেল তার স্ত্রীকে হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এরপরই সোহেল তার স্ত্রী হৃতিকার লাশ হাসপাতালের বেডে ফেলে রেখে পালিয়ে যান। ঘটনার পর থেকে সোহেলের পরিবারের লোকজনও পলাতক রয়েছেন।

শ্রীনগর থানার এসআই আতিক জানান, সুরতহাল রিপোর্টে লাশের গলায় ফাঁসির দাগ রয়েছে। তাছাড়া শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্নও রয়েছে।

তবে হৃতিকার বাবা সিরাজ তালুকদারের দাবি তার মেয়েকে পরিকল্পিতভাবে হত্যার পর ফাঁসির নাটক সাজানো হয়েছে।

শ্রীনগর থানার ওসি এসএম আলমগীর হোসেন জানান, নিহতের পরিবার হত্যার অভিযোগ দিলে তা গ্রহণ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।