রবিবার, ১২ নভে ২০১৭ ০৪:১১ ঘণ্টা

দু’টি কিডনি বিকল, একথা জানতে পেরে ভয়ানক কাণ্ড করে ফেললেন রোগী

Share Button

দু’টি কিডনি বিকল, একথা জানতে পেরে ভয়ানক কাণ্ড করে ফেললেন রোগী

এক্সক্লুসিভ ডেস্ক : হাসপাতাল থেকে পালিয়ে ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিলেন চিত্তরঞ্জন ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসাধীন এক রোগী। দু’টি কিডনি বিকল, একথা জানতে পেরে ভয়ানক কাণ্ড করে ফেললেন রোগী।

শনিবার সকাল ৭টা ২০ মিনিটে শিয়ালদহ-নামখানা লোকাল পার্ক সার্কাস স্টেশনের দু’নম্বর প্ল্যাটফর্মে ঢুকতেই আচমকা তার সামনে ঝাঁপ দেন আব্দুল খালেদ মোল্লা (৪৫)। ট্রেনের ধাক্কায় ছিটকে পড়েন দক্ষিণ ২৪ পরগনার মগরাহাটের বাসিন্দা।

ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়। মুহূর্তের মধ্যে দেহ ঘিরে লোকজন জড়ো হয়ে যায়। তখনও কেউ জানেন না ওই ব্যক্তি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। বিষয়টি জানা যায় মৃতের ভাই স্টেশনে পৌঁছনোর পর।

এদিন মৃতের ভাই জানান, আব্দুলের দু’টি কিডনিই বিকল ছিল। গত সোমবার থেকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। এদিন সকালে খাওয়ার জন্য ভাইকে বাইরে পাঠিয়ে দেন আব্দুল। ভাই বাড়ি থেকে ফিরলে নিজে খাবেন বলে জানিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু ফিরে এসে দাদাকে হাসপাতালের শয্যায় না দেখে ভাই বিচলিত হয়ে পড়েন।

হাসপাতাল চত্বরে দাদার খোঁজ চালানোর মধ্যেই রেললাইনে ট্রেনের ধাক্কায় এক ব্যক্তির মৃত্যুর খবর কানে আসে তাঁর। তার পরেই পার্ক সার্কাস স্টেশনে যান তিনি। স্থানীয় বাসিন্দাদের অনুমান, মানসিক অবসাদ থেকেই আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত আব্দুলের। দাদা হাসপাতাল থেকে কীভাবে বেরোতে পারলেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন ভাই। তাঁর বক্তব্য, ‘‘হাসপাতাল থেকে রোগী পালিয়ে গেল। অথচ কেউ খেয়াল করলেন না!’’

এ বিষয়ে হাসপাতালের সুপার পীতবরণ চক্রবর্তী বলেন, ‘‘সিঁড়ি দিয়ে রোগীর পরিবারের সদস্যেরা ওঠানামা করেন। তার মধ্যে কে রোগী নিরাপত্তারক্ষীরা বুঝবেন কী করে? সকলের উপরে কি নজর রাখা সম্ভব! রোগী যে বিছানায় নেই তা জানার পর পুলিশকে জানিয়েছি। কারও গাফিলতি ছিল কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’’  –এবেলা