প্রচ্ছদ

ভুয়া মুক্তিযোদ্ধারাও সরকারি সুযোগ সুবিধা পাচ্ছেন: প্রধান বিচারপতি

প্রকাশিত হয়েছে : ২:১৬:৪১,অপরাহ্ন ১১ মার্চ ২০১৭ | সংবাদটি ৭১ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহাস্বাধীনতার ৪৫ বছরেও আমরা প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা চূড়ান্ত করতে পারিনি। ফলে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধারাও সরকারের দেয়া বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা পাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা।

শুক্রবার সন্ধ্যায় কমলগঞ্জের ভানুগাছ বাজারে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন শেষে সুধীসমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘স্বাধীনতার ৪৫ বছর পরও প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই করার বিষয়টি খুবই অবাক লাগে। এখনও মনে প্রশ্ন জাগে কে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা, আর কে মুক্তিযোদ্ধা নয়? এতো রক্তের বিনিময়ে এবং কম সময়ে বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জন পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল ঘটনা। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর স্বাধীনতা বিরোধীরা রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় বেশি সময় ছিল বলে ইতিহাস বিকৃত হয়েছে। এজন্যই কি মুক্তিযোদ্ধারা যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন?’

তিনি আরও বলেন, ‘মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানার্থে ভিভিআইপি মর্যাদা দেওয়া উচিত। মুক্তিযোদ্ধাদের ত্যাগের বিনিময়ে দেশ স্বাধীন হয়েছে বলেই আমি সে দেশের প্রধান বিচারপতি পদে আসীন হয়েছি। এ দেশ স্বাধীন না হলে আমার মতো একজন বাঙালি কোনও দিন দেশের প্রধান বিচারপতি হতে পারতো না।’

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন-কমলগঞ্জ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল মুমিন তরফদার, মুক্তিযোদ্ধা আনন্দ মোহন সিনহা, কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহমুদুল হক, মৌলভীবাজার জেলা ও দায়রা জজ মো. শফিকুল ইসলাম, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট একেএম নাসির উদ্দিন,মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মো. তোফায়েল ইসলাম, বিজিবি-শ্রীমঙ্গল সেক্টরের কমান্ডার কর্নেল আশরাফুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহ্জালাল,জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. জামাল উদ্দিন, কমলগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান রফিকুর রহমান, এলজিইডি মৌলভীবাজারের নির্বাহী প্রকৌশলী কামরুল ইসলাম প্রমুখ।

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com