প্রচ্ছদ

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্টে টাইগারদের নেতা মাহমুদউল্লাহ

প্রকাশিত হয়েছে : ৩:৫৩:১৯,অপরাহ্ন ১৭ অক্টোবর ২০১৮ | সংবাদটি ৫ বার পঠিত

সিলেটেরকন্ঠডটকম
Bangladesh's captain Mahmudullah acknowledges the crowed after scoring fifty runs during the second day of their first test cricket match against Sri Lanka in Chittagong, Bangladesh, Thursday, Feb. 1, 2018. (AP Photo/A.M. Ahad)

আভাসটা আগেই পাওয়া গিয়েছিল। এবার তাই সত্য প্রমাণিত হল। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আসছে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেবেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন পরিষ্কার জানিয়ে দিলেন, রোডেশিয়ানদের বিপক্ষে ক্রিকেটের লঙ্গার ভার্সনে অধিনায়কত্ব করবেন মাহমুদউল্লাহই।

বাঁ হাতের কনিষ্ঠা আঙুলে গুরুতর চোট পেয়ে দলের বাইরে নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ফলে সফরকারীদের বিপক্ষে আসন্ন টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশকে কে নেতৃত্ব দেবেন- তা নিয়ে ধোঁয়াশা ছিল। বিকল্প ছিলেন দুজন- মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। অবশেষে দ্বিতীয় নামটিই বেছে নিয়েছেন বিসিবি বস।

নেতৃত্বের জন্য অবশ্য মুশির নামই প্রস্তাব করেছিল বিসিবি ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটি। তবে তাতে সম্মতি দেননি নাজমুল হাসান, আমাদের হাতে দুটি অপশন-মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহ। তারা আমাকে মুশফিকের নাম বলেছে। নেতা হিসেবে সে খুব ভালো। তবে এখন যদি তাকে আমরা অধিনায়ক করি, তা হলে এ উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যানকে পরেও রাখতে হবে। তখন সাকিবের কী হবে? সে তো আমাদের মূল ক্যাপ্টেন। ও ফিরলে কাউকে তো বলা যাবে না তুমি নেতৃত্ব ছেড়ে দাও। এমনটি করে আমি দুজনের কাউকেই ছোট করতে পারব না।

তিনি বলেন, বরং মাহমুদউল্লাহই অধিনায়কত্ব করুক। সে এখন ক্রিকেটের অভিজাত সংষ্করণে সহঅধিনায়কের দায়িত্ব পালন করে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে সে-ই নেতৃত্ব দেক। যেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সাকিব ফিরলে কোনো সমস্যা না হয়।

এসময় অতীতে মুশফিককে অধিনায়ক থেকে সরাতে এবং সাকিবকে শাস্তি দিতে গিয়ে নিজের কষ্টের কথা জানান পাপন, আমার জীবনের কঠিনতম সিদ্ধান্তের একটি ছিল হঠাৎ করে বাজে নেতৃত্বের কারণে মুশফিককে সরানো, দ্বিতীয়টি হলো সাকিবের শাস্তি। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে ওকে শাস্তি দিতে হয়েছিল।

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com