প্রচ্ছদ

কমলগঞ্জে ওএমএসের চাল পাচারকালে পিকআপসহ গ্রেপ্তার ১

প্রকাশিত হয়েছে : ৮:২৬:৫৬,অপরাহ্ন ১১ অক্টোবর ২০১৮ | সংবাদটি ২০ বার পঠিত

সিলেটেরকন্ঠডটকম

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের চিৎলিয়া গ্রাম থেকে ওএমএস এর চাল পাচারকালে একটি পিকআপসহ এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় কমলগঞ্জ উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কমলগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

বুধবার (১০ অক্টোবর) রাত ৯টায় চিৎলীয়া-কমলগঞ্জ সড়কের মঙ্গলপুর গ্রাম এলাকা থেকে কমলগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক চম্পক দাম ও উপসহকারী পরিদর্শক সুশেন দাশ পিকআপসহ ২৭ বস্তায় ৮১০ কেজি চাল জব্দ করেন।

কমলগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সুধীন চন্দ্র দাস জানান, আলীনগর ইউনিয়নের চিৎলীয়া গ্রামের ডিলার ইসলাম মিয়ার দোকান থেকে ওএমএস-এর চাল পাচারের গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলপুর গ্রাম এলাকায় উপপরিদর্শক চম্পক দাম ও উপসহকারী পরিদর্শক সুশেন দাশ একটি সাদা রংয়ের পিকআপ (ঢাকা-মেট্রো-ম  ৫৪-০১৮৫) এর গতিরোধ করেন। এ সময় পিকআপ তল্লাশি করে ২৭ বস্তায় মোট ৮১০ কেজি ওএমএসের চাল পাওয়া যায়। চালসহ পিকআপটি থানায় এনে কাগজপত্র যাচাই করে দেখা যায় চিৎলীয়া গ্রামে অর্ধেক চাল বিক্রি করে ৮১০ কেজি চাল অবৈধভাবে অন্যত্র বিক্রির জন্য পরিবহন করা হচ্ছিল।

ওএমএস-এর বিধি অনুযায়ী নির্ধারিত ডিলার তার নির্ধারিত দোকানে ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি করতে পারেন। এ চাল অন্যত্র পরিবহন করতে পারবেন না। ফলে পিকআপ জব্দ করে চালক রাজিব হাসান (৩০) কে আটক করা হয়।

বৃহস্পতিবার কমলগঞ্জ উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক তকবির হোসেন এ ঘটনায় কমলগঞ্জ থানায় দুইজনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক চম্পক দাম জানান, মামলায় আটক চালক রাজিবকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। অন্যদিকে বুধবার রাত থেকে চালের ডিলার তিলকপুর গ্রামের হেলিম উল্যার ছেলে ইসলাম মিয়া পলাতক রয়েছেন।

কমলগঞ্জ উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক তকবির হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করেছি। ওএমএসের চাল বিক্রির কিছু নিয়ম রয়েছে। এ নিয়ম ভাঙলেই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতেই হয়। তাই ডিলার ইসলাম মিয়ার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। আর চাল পাচারের দায়ে পিকআপের চালককেও গ্রেপ্তার করা হয়।

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com