প্রচ্ছদ

কমলগঞ্জের খাসিয়া পুঞ্জিতে হামলার ঘটনায় ৪ দিনেও গ্রেপ্তার হয়নি কেউ

প্রকাশিত হয়েছে : ১:৩৫:০৬,অপরাহ্ন ০৯ অক্টোবর ২০১৮ | সংবাদটি ৪ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের ডবলছড়া খাসিয়া পুঞ্জির পান জুম এলাকায় গাছ চুরিতে বাধা দেওয়ায় এক খাসিয়া সদস্যকে দা দিয়ে কুপিয়ে আহত করার ৪ দিন পার হয়ে গেলেও পুলিশ এখনো পর্যন্ত কোন এ ব্যাপারে কাউকেই গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

এদিকে হামলাকারীরা অবাধে বিচরণ করায় পরবর্তী হামলার আশঙ্কায় রয়েছেন ডবলছড়া খাসিয়া পুঞ্জির সদস্যরা।

বৃহস্পতিবার (৪ অক্টোবর) সকাল ১০টায় ডবলছড়া পান জুমে গাছ চোরচক্রের দায়ের কোপে আহত হয়েছিল ডবলছড়া খাসিয়া পুঞ্জির সদস্য প্রিং খাসিয়া (৪০)। এদিন রাতেই পুঞ্জির সদস্য ভিক্টর সুমের খাসিয়া বাদী হয়ে জয়নাল মিয়া (৪০), জমশেদ মিয়া (৩৮) ও কামরুল মিয়ার (৩৫) নাম উল্লেখ করে কমলগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেছিলেন। মামলার আসামীরা সবাই পার্শ্ববর্তী চিৎলীয়া গ্রামের বাসিন্দা।

এ নিয়ে বৃহস্পতিবার ( ৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোরে ‘খাসিয়া পুঞ্জিতে গাছ কাটতে বাঁধা দেয়ায় পাহারাদারকে কুপিয়ে আহত’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশও হয়েছিলো।

এদিকে হামলাকারীদের দায়ের কোপে গুরুতর আহতাবস্থায় প্রিং খাসিয়া এখনও সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

এ ব্যাপারে ডবলছড়া খাসিয়া পুঞ্জির হেডম্যান ভি প্রধান ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ঘটনার পরেই থানায় মামলা হলো আর ৪ দিনেও পুলিশ কোন আসামীকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। অথচ আসামীরা গ্রামে অবাধে বিচরণ করছেন। এজন্য তার পুঞ্জির খাসিয়া পরিবারগুলোর মাঝে আশঙ্কা রয়েছে এই গাছ চোরচক্রটি আবারও জুমে প্রবেশ করে গাছ কাটতে চাইবে। আর তাতে বাধা দিলেও আবারও হামলা হবে।

এদিকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কমলগঞ্জ থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) মো. ফরিদ মিয়া বলছেন ঘটনার পর থেকেই আসামীরা পলাতক রয়েছেন। এ জন্য তাদের গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি।

অন্যদিকে কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আরিফুর রহমান বলেন, আসামীদের গ্রেপ্তারে পুলিশ জোর তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। এ ঘটনায় কোন ছাড় দেওয়া হবে না।

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com