প্রচ্ছদ

সূর্যগ্রহণ চলাকালে বঙ্গবন্ধু-১’র কার্যক্ষমতার সর্বশেষ পরীক্ষা

প্রকাশিত হয়েছে : ১২:১৮:৫৪,অপরাহ্ন ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | সংবাদটি ৪৪ বার পঠিত

সিলেটেরকন্ঠডটকম

আগামী শুক্রবার সূর্য গ্রহণের সময় দেশের প্রথম কমিউনিকেশন স্যাটেলাইটটির কর্মক্ষমতা ও উপযোগিতা পরখ করে দেখা হবে। এটিই বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের পরীক্ষার শেষ ধাপ। এর আগের সব পরীক্ষায় বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের পারফমেন্স ছিল যথাযথ।

তবে এখন সব কিছু নির্ভর করছে শেষ এ পরীক্ষার ওপর। সূর্যগ্রহণের সময় স্যাটেলাইটটি কেমন পারফরম্যান্স করে সেটা পরখ করে দেখবেন উৎক্ষেপণকারীরা।

এমনিতে জিও স্টেশনারি স্যাটেলাইট হওয়ায় পৃথিবীর সঙ্গে নিজের অবস্থান ঠিক রেখে সমান গতিতে ঘুরছে বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট। ফলে ১২ ঘণ্টা স্যাটেলাইটটি আলো পেলেও বাকি ১২ ঘণ্টা তাকে জ্বালানির জোগান দিচ্ছে কয়েকটি সোলার চার্জারের শক্তি।

সূর্যগ্রহণের সময় একটানা ৩৬ ঘণ্টা স্যাটেলাইটটি সূর্যের কোনো আলো পাবে না। এত দীর্ঘসময় সূর্যের আলো ছাড়া এটি ঠিকঠাকভাবে কাজ করলে নতুন এ স্যাটেলাইটটি সব পরীক্ষায় পাস করে যাবে।

এরপর এসব পরীক্ষার তথ্য পর্যালোচনা ও যাচাই-বাছাই শেষে এটি দ্রুত হস্তান্তর করা হবে বাংলাদেশ কমিউনেকশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেডের (বিসিএসসিএল) কাছে। এ হস্তান্তর প্রক্রিয়া শেষ হতে সব মিলে অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহ লেগে যেতে পারে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

তারা জানিয়েছেন, স্যাটেলাইটটির নির্মাতা কোম্পানি থ্যালাস অ্যালেনিয়া স্পেসে এটির অবস্থান ও পারফরম্যান্স সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণ করছে। এখন পর্যন্ত পাওয়া সব তথ্য-উপাত্ত সন্তোষজনক বলে তারা মনে করছেন।

গত ১১ মে স্যাটেলাইটটি মহাকাশে উৎক্ষেপণ করা হয়। নিজ কক্ষপথ ১১৯ দশমিক ১ ডিগ্রিতে পৌঁছানো পর এটির ইন অরবিট টেস্ট (আইওটি) শুরু হয়েছিল। জুনের মাঝামাঝি এসে জানা যায় আইওটিতে খুবই ভালো অবস্থানে আছে বঙ্গবন্ধু-১। এরপর চলতি মাসের শুরুতে ঢাকায় অনুষ্ঠিত সাফ চাম্পিয়নশিপ

সরাসরি সম্প্রচার করার পরীক্ষাতেও এটি সফলতা দেখিয়েছে।

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com