মঙ্গলবার, ১২ জুন ২০১৮ ০৪:০৬ ঘণ্টা

যে কারণে আরেকজন মেসি পাবে না আগামীর বিশ্ব

Share Button

যে কারণে আরেকজন মেসি পাবে না আগামীর বিশ্ব

লিওনেল মেসি। যার পায়ের জাদুতে বুদ গোটা ফুটবল দুনিয়া। যারা বল নিয়ে তার কারিকুরি দেখেছেন বা দেখছেন, তারা সৌভাগ্যবানও বটে। কারণ, আগামীর ফুটবল বা বিশ্ব আরেকজন মেসির দেখা পাবে না। এ মন্তব্য খোদ কিংবদন্তি কোচ পেপ গার্দিওলার।

নিঃসন্দেহে বর্তমান ফুটবলের সবচেয়ে বড় তারকা মেসি। তবে তিনি তো আর একদিনে এ জায়গায় উঠে আসেননি। এখানে আসতে তাকে পোড়াতে হয়েছে বহু কাঠখড়। পিপাসিত থাকতে হয়েছে সেরা হওয়ার অদম্য তৃষ্ণায়। করতে হয়েছে কঠোর পরিশ্রম ও সাধনা। সর্বোপরি সব ধরনের লোভ-লালসার ঊর্ধ্বে উঠে বজায় রাখতে হয়েছে ন্যায়-নিষ্ঠা ও সততা।

এখনকার উঠতি খেলোয়াড়দের মধ্যে এসবের চরম অভাব দেখছেন গার্দিওলা। এমনকি সময় যত গড়াবে, ততই ফুটবলারদের মধ্যে তার পরিমাণ কমে যাবে বলে মত এ ফুটবল মস্তিষ্কের, মেসি একদম আলাদা ঘরানার খেলোয়াড়। আমরা কখনো তার মতো আর কাউকে দেখব না। আগামীর বিশ্বও এরকম ম্যাজিসিয়ানের জাদু দেখা থেকে বঞ্চিত হবে। কারণ, তার মতো কেউ হতে পারবে না।

তিনি বলেন, শুধু মাঠের খেলায় নয়, আচার-আচরণেও অনন্য মেসি। দল হেরে গেলে বা নিজে খারাপ করলে কখনো অযুহাত দেখায় না। কারও দিকে আঙুল নির্দেশ করে না। সব দায় নিজের কাঁধে নেয়। পরবর্তীতে সেই কাঁধেই দলকে টেনে তোলে। আগামীতে এর চরম সংকট দেখা দেবে।

২০০৮-২০১২ সাল পর্যন্ত বার্সেলোনার কোচ ছিলেন গার্দিওলা। তিনিই মূলত মেসিকে ঘষে-মেজে তৈরি করেন। তার অধীনেই বিশ্বসেরার খেতাব পান ছোট ম্যাজিসিয়ান।

বর্তমানে ম্যানচেস্টার সিটির কোচের দায়িত্ব পালন করছেন গার্দিওলা। তিনি হয়তো সেই বার্তায় দিলেন, সেরা ফুটবলার হতে হলে শুধু ভালো খেললেই হয় না। পাশাপাশি আচরণেও মার্জিত হতে হয়। হতে হয় অধ্যাবসায়ী, পরিশ্রমী, সৎ ও মানসিকভাবে ভীষণ শক্ত।