প্রচ্ছদ

ই-কমার্সে ৫ শতাংশ হারে ভ্যাটের প্রস্তাব

প্রকাশিত হয়েছে : ৪:১২:৫০,অপরাহ্ন ০৭ জুন ২০১৮ | সংবাদটি ৩ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রস্তাবিত ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে ইন্টারনেটভিত্তিক কেনাকাটা ই-কমার্সকে ভ্যাটের আওতায় আনার প্রস্তাব করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে পেশ করা নতুন বাজেট অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এ প্রস্তাব করেছেন।

অর্থমন্ত্রী বলেছেন, বর্তমান ইন্টারনেট বা সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার করে পণ্য বা সেবার ক্রয়-বিক্রয় বেড়েছে। এই পণ্য বা সেবার পরিসরকে আরও বাড়াতে ভার্চুয়াল বিজনেস নামের আরেকটি সেবার সংজ্ঞা সৃষ্টি করা হয়েছে। এর ফলে অনলাইনভিত্তিক যেকোনো পণ্য বা সেবার ক্রয়-বিক্রয় বা হস্তান্তরকে এই সেবার অন্তর্ভুক্ত করা সম্ভব হবে।

ফেসবুকের মাধ্যমে কেনাকাটাসহ সব ধরনের ই-কমার্সের ওপর অভিন্ন ৫ শতাংশ হারে ভ্যাটের প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী।

দেশে বর্তমানে সক্রিয় ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা আট কোটি ৫৯ লাখ। সেই তুলনায় ই-কমার্স ব্যবহারকারীর সংখ্যা কম হলেও ভবিষ্যতে এ সংখ্যা বাড়বে বলেই মনে করা হয়।

এর আগে ২০১৫ সালেও প্রস্তাবিত বাজেটে ই-কমার্সের ওপর ৪ শতাংশ ভ্যাট রাখা হয়েছিল। অবশ্য পরে এটি বাদ দিতে বাধ্য হয়েছিলেন।

তবে এ ধরনের ব্যবসা সংশ্লিষ্টরা আইটি ও ই-কমার্সকে ২০২৪ সাল পর্যন্ত ভ্যাটের আওতামুক্ত রাখার দাবি জানিয়ে আসছেন।

ই-কমার্স ব্যবসা সংশ্লিষ্টরা বলেন, প্রতিদিন ২০ লাখ মানুষ অনলাইনে কেনাকাটা করছেন। বার্ষিক ৪০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি নিয়ে এই বাজারের আকার এখন প্রায় দুই হাজার কোটি টাকা।

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com