প্রচ্ছদ

ক্রিকেট বল কুড়াতে গিয়ে মিললো বস্তাবন্দি লাশ

প্রকাশিত হয়েছে : ৭:২৩:০০,অপরাহ্ন ১৬ এপ্রিল ২০১৮ | সংবাদটি ৯ বার পঠিত

সিলেটেরকন্ঠডটকম

সিলেট নগরীর ঘাসিটুলা এলাকায় নিখোঁজের তিন দিন পর এক কিশোরের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার দুপুর ১২ টায় এলজিইডি কার্যালয়ের সীমানাপ্রাচীর সংলগ্ন খালের পাশ থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত সোহাগ মিয়া মজুমদারপাড়ার ময়না মিয়ার কলোনীতে মায়ের সাথে থাকতো। তাদের বাড়ি বগুড়ার ওলিবাজারে। সে নগরীর কাজিরবাজারে মাছের আড়তে দিনমজুরের কাজ করতো।

পুলিশ জানায়,গত ১৩ এপ্রিল থেকে সোহাগের খোঁজ পাচ্ছিলেননা তার স্বজনরা। সোমবার সকালে স্থানীয় শিশু-কিশোররা এলজিইডি অফিসের পাশে ক্রিকেট খেলছিলো। একপর্যায়ে বল গিয়ে ওই খালের পাশে পড়ে। এসময় বল কুঁড়িয়ে আনতে গিয়ে বস্তাবন্দি লাশ দেখতে পায় তারা। স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দিয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

মরদেহের শরীরে একাধিক আঘাতের চিহৃ রয়েছে। পুলিশের ধারনা সোহাগকে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে হত্যা করা হয়েছে। কি কারনে এবং কারা তাকে হত্যা করেছে বিষটি তদন্ত করছে পুলিশ।

সোহাগ মিয়ার মা ফুলবানু জানান, গত ১৩ এপ্রিল বাড়ি থেকে বের হওয়ার পর আর ফিরে আসেনি সোহাগ। সম্ভাব্য সকল স্থানে খোঁজ করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার বিভূতি ভূষণ ব্যানার্জ্জী জানান, স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে বস্তাবন্দি লাশের খবর পেয়ে পুলিশ এসে উদ্ধার করে। এসময় পরিবারের লোকজন সোহাগের লাশ সনাক্ত করেন। লাশের গলা, হাতে ও পায়ে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তারে পুলিশ তৎপরতা চালাচ্ছে বলে জানান তিনি।

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com