রবিবার, ১৫ এপ্রি ২০১৮ ১০:০৪ ঘণ্টা

গণধর্ষিতার বিরোধিতা করে সমালোচনায় সানিয়া

Share Button

গণধর্ষিতার বিরোধিতা করে সমালোচনায় সানিয়া

৮ বছরের আসিফাকে গণধর্ষণ করে খুন করেছে ধর্ষকরা। আর এই জঘন্য ঘটনায় নিজের টুইটারে দুঃখ প্রকাশ করেছেন টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা। তাতেই চরাও হয়েছেন কট্টরপন্থীরা। সমালোচকদের পাল্টা জবাবও দিয়েছেন সানিয়া।

গত ১০ জানুয়ারি জম্মু ও কাশ্মীরের কাঠুয়া গ্রাম থেকে আসিফাকে অপহরণ করে একদল দুষ্কৃতীরা। ওই দুষ্কৃতীদের মধ্যে ছিল স্থানীয় পুলিশকর্মীরাও। ছিল দুই নাবালকও। দিনের পর দিন তাকে ধর্ষণ করে শেষে খুন করা হয়। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

কাঠুয়ায় আসিফাকে গণধর্ষণ করে খুনের ঘটনায় উত্তাল গোটা দেশ। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী ঘটনার নিন্দা করে প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছেন।

এদিকে বিজেপি নেত্রী ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি বলেন, ধর্ষণের মতো ঘটনাতে যেন রাজনীতির রং না লাগানো হয়। তারই মধ্যে মধ্যপ্রদেশের উগ্র হিন্দুত্ববাদী সংগঠন বিজেপির নেতা ও রাজ্য সভাপতি নন্দকুমার সিং চৌহান বলেন, আসিফা গণধর্ষণের নেপথ্যে রয়েছে পাকিস্তানের হাত।

আর এ ঘটনার বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হন সানিয়া মির্জাও। আফিসার এই ঘটনা নিয়ে মন্তব্য করায় সানিয়া মির্জাকে নিয়ে কঠোর সমালোচনা শুরু হয়।

অনেকেই কটাক্ষ করে বলছেন, দেশে একাধিক ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু কাঠুয়া নিয়েই সরব হয়েছেন সানিয়া। অর্থাৎ শুধুমাত্র মুসলিম সম্প্রদায়ের নাবালিকার সঙ্গেই এমনটা হয়েছে বলে প্রতিবাদমুখর সানিয়া। নিন্দুকদের এমন কথার পাল্টা জবাব দিয়েছেন টেনিস তারকা।

সানিয়া টুইটারে লেখেন, ‘কীভাবে একজন বলতে পারেন, যে আমি শুধু আট বছরের মুসলিম মেয়ের সমর্থনে কথা বলেছি? কোনও হিন্দুর জন্য নয়? আমি স্পষ্ট করে দিতে চাই, যে কোনও ধর্মের মানুষের যে কোনও রকমের অপরাধই মেনে নেওয়া যায় না। উত্তরপ্রদেশ হোক বা কাশ্মীর কিংবা আসাম, যেখানেই ধর্ষণের মতো এমন জঘন্য অপরাধ ঘটুক না কেন, নির্যাতিতা যেন সুবিচার পায়। অপরাধের সঙ্গে জাতি-ধর্ম-বর্ণের কোনও সম্পর্ক নেই।

পাকিস্তানের বধূ হিসেবে কিংবা ভারতীয় হিসেবে নয়, এককজন মানুষ হিসেবে এমন ঘটনার প্রতিবাদ জানাচ্ছি।’

1Shares