প্রচ্ছদ

ফিশিং বোটে ৩ লাখ ৮০ হাজার পিস ইয়াবা

প্রকাশিত হয়েছে : ১১:১৪:৪৮,অপরাহ্ন ১২ এপ্রিল ২০১৮ | সংবাদটি ১৩ বার পঠিত

সিলেটেরকন্ঠডটকম

টেকনাফের নাফ নদীর ছৈয়দ আহমদের ফিশিংঘাট থেকে তিন লাখ ৮০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ সময় ইয়াবা বহনকারী একটি কাঠের বোটও জব্দ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোররাতে পুলিশ এই অভিযান চালায়।

তবে বোটটির মালিকানা নিয়ে পুরো টেকনাফজুড়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। স্বয়ং পুলিশও সংবাদমাধ্যমে বোটের প্রকৃত মালিক সম্পর্কে পরিষ্কার কিছু জানাতে পারেনি।

তবে বোটের মধ্যে যে কাগজ পাওয়া গেছে তাতে দেখা যায়, বোটটি টেকনাফের মধ্যম জালিয়াপাড়ার ছিদ্দিক আহমদের ছেলে আবদুস ছালামের।

সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার ভোররাতে মিয়ানমার থেকে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা নিয়ে এফবি সাদিয়া নামক ফিশিং বোটটি নাফ নদীর কায়ুক খালীর ছৈয়দ আহমদের ফিশিংঘাটে নোঙর করে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালায় টেকনাফ থানা পুলিশ। এ সময় পুলিশের অভিযানের টের পেয়ে পালিয়ে যায় পাচারকারীরা।

একপর্যায়ে বোটটি তল্লাশি করে উদ্ধার করা হয় তিন লাখ ৮০ হাজার পিস ইয়াবা পাওয়া যায়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন টেকনাফ থানার ওসি রনজিত কুমার বড়ুয়া, পরিদর্শক (তদন্ত) শেখ আশরাফুজ্জামান ও পরিদর্শক ( অপারেশন) রাজু আহাম্মেদসহ ২০-৩০ জনের পৃথক দুই দল।

বিশাল আকারের ইয়াবা উদ্ধারের খবরে কক্সবাজার জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফরুজুল হক টুটুলের নেতৃত্বে একটি টিম ঘটনাস্থলে যায়।

ওসি রনজিত কুমার বড়ুয়া যুগান্তরকে বলেন, আটককৃত ইয়াবার চালান কক্সবাজার জেলা পুলিশের সর্ববৃহৎ ইয়াবার চালান। আটককৃত ফিশিং বোটের মালিক ও ইয়াবা পাচারের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com