শুক্রবার, ০৬ এপ্রি ২০১৮ ১১:০৪ ঘণ্টা

রুমাল ঝাড়তেই সুগন্ধিতে ব্যবসায়ী অজ্ঞান

Share Button

রুমাল ঝাড়তেই সুগন্ধিতে ব্যবসায়ী অজ্ঞান

বাসের সিটে বসা ভদ্রলোকের রুমাল ঝাড়তেই সুগন্ধিতে অজ্ঞান হয়ে পড়েছেন এক স্বর্ণ ব্যবসায়ী। এ সময় ব্যবসায়ীর নগদ টাকা,স্বর্ণের গয়না ও একটি মোবাইল খোয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নাটোরের বড়াইগ্রামে কুষ্টিয়াগামী রাজকীয় ট্রাভেলসে আহম্মেদপুর বাসস্ট্যান্ডের পরে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী লিটন কুমার বিশ্বাস উপজেলার নগর ইউনিয়নের শ্রী নিরাপদ বিশ্বাসের ছেলে ও চাঁদপুর বাজারের মেসার্স মা-বাবা জুয়েলার্সের স্বত্বাধিকারী।

ভুক্তভোগীর স্বজনরা জানায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় লিটন কুমার নাটোর থেকে সোয়া পাঁচ ভরি ওজনের স্বর্ণের গয়না কিনে নগদ টাকাসহ কুষ্টিয়াগামী রাজকীয় ট্রাভেলসে বাড়ি ফিরছিলেন। আহম্মেদপুর বাসস্ট্যান্ড পার হওয়ার পর পাশের আসনে বসা ব্যক্তি তার নাকের সামনে একটি রুমাল নিয়ে দুই তিনবার ঝাঁকি দেয়।

এ সময় তিনি সুগন্ধি অনুভব করার পর থেকে অচেতন হয়ে পড়েন। পরে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার বারো মাইল এলাকায় বাসের হেলপার তাকে অজ্ঞান অবস্থায় রাস্তায় ফেলে রেখে চলে গেলে পথচারীরা তাকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করেন।

রাতে খবর পেয়ে স্বজনরা সেখান থেকে তাকে বাড়িতে নিয়ে আসেন।