বৃহস্পতিবার, ০৫ এপ্রি ২০১৮ ১১:০৪ ঘণ্টা

বিচার চেয়ে ব্যাগে ভ্রূণ নিয়ে থানায় তরুণী

Share Button

বিচার চেয়ে ব্যাগে ভ্রূণ নিয়ে থানায় তরুণী

প্রথমে ধর্ষণ। তার জেরে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন এক দলিত তরুণী। পরে কৌশলে গর্ভপাত করানো হয় তার। কিন্তু থেমে যাননি তরুণী। গর্ভপাত করার পর সেই ভ্রূণ নিয়ে চলে যান থানায়। দোষীদের শাস্তি চেয়ে অভিযোগ দায়ের করেন ওই নির্যাতিতা তরুণী।

সম্প্রতি ভারতের মধ্যপ্রদেশের সাতনা জেলায় এ ঘটনা ঘটেছে। নির্যাতিত তরুণী জানিয়েছেন, ওই দিন রাতে প্রাকৃতিক কাজ সারতে বাইরে বের হই। তখন আমায় তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করা হয়। এই ঘটনায় নাম উঠে আসে নীরজ নামে এক যুবকের। ঘটনায় মদদ দেয়ার অভিযোগ ওঠে দুই নারীর বিরুদ্ধে।

জানা যায়, ওই দুই নারী নীরজের আত্মীয়। বিষয়টি ধামাচাপা দিতে ওই দলিত তরুণীকে বিয়ের প্রস্তাবও দেয় নীরজের পরিবার। সেই সঙ্গে থানায় অভিযোগ না জানানোর কথা বলে। এদিকে সম্প্রতি ওই তরুণী জানতে পারেন তিনি অন্তঃসত্ত্বা। বিষয়টি জানানো হয় নীরজকেও। এরপর চিকিৎসার নামে ওই তরুণীকে একটি হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে গর্ভপাত করানো হয়। গর্ভপাতের পর বিয়ের ব্যাপারে বেঁকে বসে নীরজ। তখন পুলিশের কাছে অভিযোগ জানান তরুণীর পরিবার।

বুধবার জেলার পুলিশ সুপারের অফিসে প্লাস্টিকের ব্যাগে ভ্রূণ নিয়ে চলে যান ওই তরুণী। এরপর পুলিশ সুপারের নির্দেশে অভিযোগ দায়ের করে থানা।

নীরজ ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে তফসিলি জাতি ও উপজাতি ধারায় মামলা দায়ের করে পুলিশ তবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি।