প্রচ্ছদ

কিশোরগঞ্জে ফের নিশি পার্টির তাণ্ডব!

প্রকাশিত হয়েছে : ৮:১৩:১৩,অপরাহ্ন ৩১ মার্চ ২০১৮ | সংবাদটি ৩ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক

ফের নিশি পার্টির ভয়ে আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন কিশোরগঞ্জ শহরের ব্যবসায়ীরা। বৃহস্পতিবার রাতে শহরের প্রাণকেন্দ্রে নিশি পার্টির সশস্ত্র হামলার পর থেকে ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় সন্ত্রাসীদের রামদা ও চাপাতির আঘাতে দোকান মালিক বাবা-ছেলেসহ ৩ জন গুরুতর আহত হন।

আহতরা হলেন, মিতালী বডিংয়ের কর্ণধার ওসমান গনি (৬০), তার ছেলে মো. আরমান (২৭) ও ভাতিজা শওকত (২৫) । এদের মধ্যে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গলা ও শ্বাসনালি কেটে যাওয়া গুরুতর আহত আরমান ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।

বৃহস্পতিবার রাতে গৌরাঙ্গ বাজারের ঐতিহ্যবাহী বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান মিতালী বডিংয়ে (লেপ-তোশকের দোকান) এ হামলার ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনার প্রতিবাদ ও বিচার দাবিতে ব্যবসায়ীরা শিগগিরই ধর্মঘটসহ হরতালের মতো কঠিন কর্মসূচি ঘোষণা করবেন বলে জানান বাজার ব্যবসায়ী সমিতির একটি সূত্র।

প্রত্যক্ষদর্শী ও ব্যবসায়ীরা জানান, গত বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে ১৫ থেকে ২৫ বছর বয়সের সংঘবদ্ধ ৩০-৪০ কিশোর-যুবক অতর্কিত মিতালী বডিংয়ে হানা দিয়ে ৫-৭ মিনিট তাণ্ডব চালায়। এ সময় আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে অন্য ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে দেন।

এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি আবুশামা মো. ইকবাল হায়াত যুগান্তরকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ বিষয়ে এখনও কোনো মামলা রুজু না হলেও পুলিশ ঘটনার পর থেকেই সন্ত্রাসীদের আটকের অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

প্রসঙ্গত, নিশি পার্টি হিসেবে পরিচিত ওই সন্ত্রাসী চক্র গত বছর শহরের ৩২, বড়বাজার, পুরান থানা ও নগুয়াসহ বেশ কয়টি স্পটে একই কায়দায় হামলা চালিয়ে দোকানপাট ও বাসাবাড়ি ভাঙচুরের মতো তাণ্ডব চালায়। এ সময়ও তাদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ব্যবসায়ী, পথচারীসহ কয়েকজন শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে কোনো রকমে প্রাণে বেঁচে যান। এ ঘটনার আবারও পুনরাবৃত্তি ঘটায় শহরবাসীর মধ্যে নতুন করে নিশি পার্টির আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।