প্রচ্ছদ

বাহুবলে পুলিশ-গ্রামবাসী সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধসহ আহত ১০

প্রকাশিত হয়েছে : ৮:২০:১৪,অপরাহ্ন ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | সংবাদটি ৩ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক

হবিগঞ্জ জেলার বাহুবলে টিলার মালিকানা নিয়ে বিরোধের জেরে পুলিশ ও গ্রামবাসীর সংঘর্ষে কমপক্ষে ১০জন আহত হয়েছেন।

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে বাহুবল উপজেলার রশিদপুরের রামপুর চা বাগান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- সুন্দ্রাটিকি গ্রামের আবদাল মিয়া (৩৫), হাবিব উল্লাহ (২৮), রেণু মিয়া (৩০), সোহেল মিয়া (২৫), বিলাল মিয়া (৩০), আব্দুল কদ্দুছ (৪৪), মোজাম্মেল (২৮), ইদ্রিস আলী (৭০)। আহতদের বাহুবল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার বাবুল কুমার দাশ জানান, আহতদের মধ্যে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় ইদ্রিস আলীকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং আবদাল মিয়া ও হাবিব উল্লাহ নামে দু’জনকে হবিগঞ্জ আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, উপজেলার ভাদেশ্বরী ইউনিয়নের সুন্দ্রাটিকি গ্রামের রামপুর চা বাগানে সরকারী জায়গা দখল করে সুন্দ্রাটিকি গ্রামের লোকজন রাতে টিন দিয়ে দুটি ঘর নির্মাণ করে দখল করে নেয়। এদিকে রামপুর চা বাগান কর্তৃপক্ষ বিষয়টি র‌্যাব-৯ শ্রীমঙ্গল ও বাহুবল মডেল থানাকে অবহিত করলে বাহুবল উপজেলা নির্বাহী অফিসার জসিম উদ্দিনের নেতৃত্বে তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছেন।


এদিকে জায়গার কাগজপত্র হাতে নিয়ে নির্মানকৃত ঘরের পাশে দাড়িয়ে দখল নিশ্চিত করতে প্রস্তুত থাকে গ্রামবাসীর একাংশের লোকজন। এক পর্যায়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওই সরকারী ভূমি থেকে গ্রামবাসীদের সরে যেতে বললে তারা যেতে চায় নি। পরে গ্রামবাসীরা একত্রিত হয়ে পুলিশের উপর হামলা চালানোর চেষ্টা করলে পুলিশ তাদেরকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ সময় ১০ জন আহত হন।

এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বাহুবল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুক আলী বলেন, সরকারী জায়গা থেকে দখলদারদের উচ্ছেদ করতে গেলে দখলদাররা পুলিশের উপর চওড়া হয় এবং লাঠিসোঁটা নিয়ে পুলিশের দিকে ধাওয়া করে আত্মরক্ষার্থে পুলিশ গুলি ছুড়ে।

বাহুবল উপজেলা নির্বাহী অফিসার জসিম উদ্দিন জানান, এই জায়গাটি নিয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সহ কয়েকবার বসেছি। এক পর্যায়ে আমরা তাদেরকে ৮ একর জায়গা দিয়ে দিব বলার পরও তারা সরকারী ভূমি ছাড়ছেন না। তারা দাপট দেখিয়ে সরকারী ভূমিতে ঘর তৈরি করেছে।

এ প্রতিবেদন লিখা পর্যন্ত সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা আছে। ঘটনার পর থেকে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com