মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রু ২০১৮ ১০:০২ ঘণ্টা

‘প্রধান শিক্ষকের’ সন্ধানে বিসিবি

Share Button

‘প্রধান শিক্ষকের’ সন্ধানে বিসিবি

দলের সিনিয়র ক্রিকেটার এবং কোচিং স্টাফদের ওপর ভরসা করেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ত্রিদেশীয় সিরিজ ও শ্রীলংকার বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে কোচিং স্টাফদের ওপর আস্থা রাখা ছাড়া আর কোনো উপায়ও ছিল না।

সিরিজ দুটিতে ব্যর্থ হওয়ায় জরুরি ভিত্তিতে একজন প্রধান কোচের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছে বোর্ড। বাংলাদেশ দলের চাহিদামতো কোচ পাওয়া না গেলে যাকে-তাকে কোচ করতে চায় না বিসিবি। শ্রীলংকায় আসন্ন তিন জাতির নিদহাস কাপের আগে ব্যাটিং কোচ হিসেবে মাইকেল বেভান বা নিল ম্যাকেঞ্জির মধ্যে যেকোনো একজনকে আনার চেষ্টা করছে বোর্ড। তবে এ সময়ের মধ্যে তাদের আনা কঠিন বলে মনে করা হচ্ছে।

সোমবার ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির সঙ্গে আলোচনার পর মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বলেন, ‘আমরা প্রধান কোচ নিয়োগের ব্যাপারে সতর্ক। একটা স্কুলে সবধরনের শিক্ষক থাকতে পারেন।

অঙ্কের শিক্ষক, ভূগোলের শিক্ষক কিন্তু হেডমাস্টার দরকার। আমাদের সব শিক্ষক আছেন, হেডমাস্টার নেই। আমাদের একজন হেড কোচ অবশ্যই দরকার। এটা খেলোয়াড়রাও অনুভব করছে। কয়েকদিন আগে কয়েকজন সিনিয়র খেলোয়াড় বলছিল, যত শিগগির সম্ভব প্রধান কোচ আনা প্রয়োজন।’

তিনি বলেন, ‘আমরা প্রধান কোচের ইস্যু নিয়ে আলোচনায় বসেছিলাম। বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন সোর্সের মাধ্যমে চেষ্টা করছি। বাংলাদেশ দলের সঙ্গে মানানসই কোচ খোঁজার জন্য একটু দেরি হচ্ছে।’

মাইকেল বেভান ও ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে আগেই আলোচনা করেছে বিসিবি।

জালাল ইউনুস বলেন, ‘নিদহাস ট্রফির আগে এত কম সময়ের মধ্যে কোনো ব্যাটিং কোচ হয়তো আনা সম্ভব হবে না। বেভান ও ম্যাকেঞ্জির মধ্যে একজনকে ব্যাটিং কোচ হিসেবে আনার চেষ্টা করছি। কিন্তু এই অল্প সময়ের মধ্যে তাদের আনা কঠিন। কিছু শর্তের ব্যাপার রয়েছে। তাই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারছি না।’